দুপুর ০৩:১১ ; শুক্রবার ;  ১৮ অক্টোবর, ২০১৯  

শুরু হচ্ছে সারা দেশব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসব

প্রকাশিত:

বিনোদন প্রতিবেদক।।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে আয়োজন করা হচ্ছে দুই সপ্তাহ ও সারা দেশব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসব। এর শিরোনাম ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৫’। এতে ৬৪ জেলা শিল্পকলা একাডেমির ব্যবস্থাপনায় আগামী ১০ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে প্রদর্শনী। চলবে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ১৫ দিনের এই আয়োজনে জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন এবং দেশের সব জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে একযোগে একই ধরনের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী হবে।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার হলে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক মহিউদ্দিন শাকের ও মোরশেদুল ইসলাম এবং চলচ্চিত্র গবেষক অনুপম হায়াত। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন একাডেমির সচিব জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী, নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক সারা আরা মাহমুদ, অর্থ বিভাগের পরিচালক শহিদুল ইসলাম এবং নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের সহকারী পরিচালক মোস্তফা আল মাস্উদ সুমন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে উৎসব উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন তথ্যমন্ত্রী  হাসানুল হক ইনু। শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে থাকবেন চলচ্চিত্র পরিচালক সৈয়দ সালাহউদ্দীন জাকী, মসিহউদ্দিন শাকের এবং মোরশেদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করবেন একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক সারা আরা মাহমুদ। এরপর সন্ধ্যা ৭টায় থাকছে তারেক মাসুদ পরিচালিত ‘মাটির ময়না’।

উৎসবে দেখানো হবে- ১১ ডিসেম্বর অ্যাডাম দৌলার ‘বৈষম্য’ (সকাল ১০টা), আলমগীর কবিরের ‘সীমানা পেরিয়ে’ (বিকেল ৪টা), জহির রায়হানের ‘কাচের দেয়াল’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১২ ডিসেম্বর মসিহউদ্দিন শাকের ও শেখ নিয়ামত আলীর ‘সূর্যদীঘল বাড়ি’ (বিকেল ৪টা), প্রসূন রহমানের ‘সুতপার ঠিকানা’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১৩ ডিসেম্বর গৌতম ঘোষের ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ ঠিকানা’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১৪ ডিসেম্বর বাদল রহমানের ‘এমিলের গোয়েন্দা বাহিনী’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১৫ ডিসেম্বর হারুনুর রশীদের ‘মেঘের অনেক রং’ (সন্ধ্যা ৬টা)।

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে মোরশেদুল ইসলামের ‘আমার বন্ধু রাশেদ’ (বিকেল ৪টা), নাসিরউদ্দীন ইউসুফের ‘গেরিলা’  (সন্ধ্যা ৬টা), ১৭ ডিসেম্বর সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১৮ ডিসেম্বর নোমান রবিনের ‘কমন জেন্ডার’ (সকাল ১০টা), তারেক মাসুদের ‘রানওয়ে’ (বিকেল ৪টা), মুরাদ পারভেজের ‘বৃহন্নলা’ (সন্ধ্যা ৬টা), ১৯ ডিসেম্বর আবু সাইয়ীদের ‘কিত্তনখোলা’ (বিকেল ৪টা), আকরাম খানের ‘ঘাসফুল’ (সন্ধ্যা ৬টা), ২০ ডিসেম্বর সাইদুল আনাম টুটুলের ‘আধিয়ার’ (সন্ধ্যা ৬টা), ২১ ডিসেম্বর তানভীর মোকাম্মেলের ‘লালন’ (সন্ধ্যা ৬টা), ২২ ডিসেম্বর সৈয়দ সালাহউদ্দীন জাকীর ‘ঘুড্ডি’ (সন্ধ্যা ৬টা), ২৩ ডিসেম্বর আবদুল্লাহ আল মামুনের ‘সারেং বৌ’ (সন্ধ্যা ৬টা), ২৪ ডিসেম্বর গাজী রাকায়েতের ‘মৃত্তিকা মায়া’ (সন্ধ্যা ৬টা)।

/এম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।