বিকাল ০৫:৫৪ ; সোমবার ;  ১৮ জুন, ২০১৮  

দেশে আজ নিরাপত্তার বড় অভাব: এরশাদ

প্রকাশিত:

লালমনিরহাট প্রতিনিধি।।

দেশবাসী নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এইচএম এরশাদ। তিনি বলেন, দেশবাসী নিরাপত্তা চায়, শান্তিতে বাস করতে চায়। দেশে আজ নিরাপত্তার বড় অভাব। আগামী দিনে কী হবে তা নিয়ে মানুষের মনে আনেক আশঙ্কা।

মঙ্গলবার দুপুরে পশ্চিমবঙ্গের কুচবিহার জেলার দিনহাটায় পৈতৃকবাড়িতে তিন দিনের ব্যক্তিগত সফরে যাওয়ার প্রাক্কালে বুড়িমারী স্থলবন্দর জিরোপয়েন্টে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি একদিন জাতীয় পার্টিকে নিঃশেষ করার চক্রান্ত করেছিল। জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের জেলে পুড়েছিল। আমাকে সপরিবারের জেলে পাঠানো হয়েছিল। অথচ বিএনপিই আজ নিঃশেষের পথে।

৩০ ডিসেম্বর পৌরসভার নির্বাচন প্রসঙ্গে এইচএম এরশাদ বলেন, এই নির্বাচন সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য করতে আওয়ামী লীগের সব প্রার্থী হেরে গেলেও ক্ষমতা যাবে না এ সরকারের। বরং নির্বাচন সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য হলে সাধারণ মানুষের কাছে বর্তমান সরকারের গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পাবে।

এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টি এই নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। কিছু পৌরসভায় মেয়র প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। অনেক প্রার্থীকে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় হুমকি-ধামকি দেওয়া হয়েছে। তাই নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে কিনা, তা নিয়ে সাধারণ মানুষের মনে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নবম শ্রেণি পাসের পর ভারত থেকে বাংলাদেশে চলে আসি। সেখানে আমার দাদা-দাদিসহ অনেক স্মৃতি রয়েছে। আমার চাচাতো ভাই মোছাব্বের হোসেন, তোজাম্মেল হোসেন ও আহসান হাবীবদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ করব। মায়ার টানেই সেখানে যাচ্ছি।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, চাচাতো ভাইয়ের মেয়ের বিয়ের দাওয়াতে অংশ নিতেই তার এই সফর।

এ সময় এইচএম এরশাদের ছেলে এরিক এরশাদ, ছোট ভাই জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী গোলাম মোহাম্মদ কাদের, ব্যক্তিগত সহকারী আব্দুল ওহাব ও গাড়ি চালক আব্দুল মান্নান সঙ্গে ভারতে যান।

/আরএ/ এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।