রাত ১১:৪৮ ; শুক্রবার ;  ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮  

তিনভাগে নোট জমা না দিলে অর্থদণ্ড

প্রকাশিত:

 বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

তিনভাগে বিভক্ত করে নোট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। দেশের সব তফসিলী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে এ নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

সোমবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুদ্র ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে সার্কুলার জারি করা হয়।

এখন থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে নোট জমা দেওয়ার সময় ব্যাংকগুলোকে পুনঃপ্রচলযোগ্য, অপ্রচলনযোগ্য ও মিউটিলেটেড (খণ্ডিত নোট) নোট আলাদাভাবে জমা দিতে হবে।

এ নির্দেশনা না মানলে সংশ্লিস্ট ব্যাংককে ‘নেগেটিভ পয়েন্টের’ ওপর ভিত্তি করে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। অর্থদণ্ড করার ক্ষেত্রে ব্যাংক কোম্পানি আইন অনুসরণ করা হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক লক্ষ্য করছে, অনেক দিন ধরেই যথাযথভাবে নোট বাছাই (সর্টিং) করে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেওয়ার নির্দেশনা মানছে না দেশের তফসিলী ব্যাংকগুলো। নতুন, পুরনো, ছেঁড়া, ফাটা সব নোটের ক্ষেত্রেই হ-য-ব-র-ল পাকিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জমা করছে ব্যাংকগুলো।

এতে ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নোট পরীক্ষার সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তাদের। ব্যাংকগুলোর এমন আচরণে ক্ষুব্ধ হয়েই বাংলাদেশ ব্যাংক এ নির্দেশনা দিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলেছে, যথাযথভাবে নোট বাছাই, বাংলাদেশ ব্যাংকে নোট জমা দেওয়া ও নেওয়া, নোটে তোড়া বাঁধার নিয়ম-কানুন, জালনোট প্রচলন প্রতিরোধে করণীয়, ব্যাংকের শাখায় গ্রাহকদের জন্য পর্যাপ্ত ধাতব মুদ্রার ব্যবস্থা রাখাসহ বিভিন্ন বিষয়ে নির্দেশনা দিয়ে চলতি বছরের শুরুতে মুদ্রা ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে একটি বিশদ নির্দেশনা জারি করা হয়।

ওই নির্দেশনায় বাংলাদেশ ব্যাংকে নোট জমা দেওয়ার সময় প্রচলনযোগ্য ও অপ্রচলনযোগ্য নোট আলাদাভাবে জমা দেওয়ার কথা বলা হয়। কিন্তু বেশিরভাগ ব্যাংকই বাংলাদেশ ব্যাংকের এ নির্দেশনা মানছে না।

বিষয়টি নিয়ে চলতি বছরের ৮ সেপ্টেম্বর বাণিজ্যিক ব্যাংকের মুদ্রা বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকও করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই বৈঠকে নোট বাছাইয়ের নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন, লেনদেন ও এটিএমে টাকা ঢোকানোর আগে জালনোট শনাক্তকরণ মেশিনের ব্যবহার ও ছোট মূল্যমানের নোট গ্রহণে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মানার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

কিন্তু তারপরও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন হয়নি। ফলে নতুন করে আবারও নির্দেশনা জারি করে সতর্ক করে দেওয়া হলো ব্যাংকগুলোকে।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।