সকাল ০৯:৫৭ ; সোমবার ;  ২২ অক্টোবর, ২০১৮  

শীতের প্রস্তুতি ঠিকঠাক

প্রকাশিত:

লাইফস্টাইল ডেস্ক।।
হাড় কাঁপানো শীত না এলেও প্রকৃতি জুড়ে বইতে শুরু করেছে হিমেল হাওয়া। সেই সাথে পরিবর্তন আসতে শুরু করেছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাপনেও। হিম হিম দিনগুলোর জন্য প্রস্তুতি শুরু করুন এখন থেকেই।
শীতের প্রয়োজনীয় সরঞ্জামগুলো সারা বছর যত্ন করে তুলে রাখা হয়। পুনরায় ব্যবহারের আগে তাই এগুলো ভালো করে রোদে দেওয়া জরুরি। না হলে ছত্রাক, ধুলাবালি কিংবা ভ্যাপসা গন্ধ থেকে যাবে। ব্যবহারের আগে লেপ, কম্বল বা মোটা কাঁথা বের করে কড়া রোদে দিন। তারপর ধুলাবালি ঝেড়ে নিয়ে তারপর ব্যবহার করুন। প্রয়োজনে ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন। তবে কম্বলের নরম আঁশ যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেদিকে নজর রাখা জরুরি। কম্বল খুব কড়া রোদে দেওয়াও উচিত নয়। এতে রঙ জ্বলে যেতে পারে। লেপের কভার ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে তারপর ব্যবহার করুন।
 


দীর্ঘদিন তুলে রাখা পোশাকগুলো ভালো করে পরিষ্কার করে নিন এখনই। প্রয়োজনে লন্ড্রিতে দিতে পারেন। হালকা শীতে পরার পোশাকসহ টুকিটাকি জিনিসগুলো যেমন হাতমোজা, টুপি গুছিয়ে প্রস্তুত রাখুন। সোয়েটার, শাল শুকাতে সময় লাগে বেশি। তাই রোদেলা দিন দেখে তবেই এগুলো ধোবেন। ব্লেজার, কোট ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করে হালকা রোদে শুকিয়ে নিন। পশমি কাপড় রিঠার পানি দিয়ে ধুলে ভালো হয়। উলের জামাকাপড় অল্প ডিটারজেন্ট দিয়ে হালকা হাতে ধুতে হবে। কম ক্ষারযুক্ত সাবান বা শ্যাম্পুও ব্যবহার করতে পারেন। তবে উলের পোশাকে কখনো ব্রাশ ব্যবহার করবেন না। উলের জামাকাপড় কড়া রোদে দেওয়াও অনুচিত। শীতের পোশাক আলমারিতে রাখার সময় কখনো চেপে রাখবেন না। পোশাক পরিষ্কার করে হ্যাঙ্গারে ঝুলিয়ে রাখুন। ছোটদের শীতের পোশাক পরিষ্কার করে স্যাভলন দিয়ে ধুয়ে তারপর কড়া রোদে শুকাবেন।
বাজারে বাহারি শীতের পোশাক আসতে শুরু করেছে। পর্যাপ্ত শীতের পোশাক না থাকলে কিনে নিতে পারেন এখনই। অথবা পুরনো পোশাকগুলোর ছোটখাট ত্রুটি মেরামত করে ব্যবহারের উপযোগী করে তুলুন। ভারি কাপড়ের পর্দা হিমেল বাতাস থেকে রক্ষা করবে আপনার রুমকে।

শতরঞ্জি বা কার্পেট কিনে বিছিয়ে দিতে পারেন মেঝেতে। এতে মেঝে থেকে ঠাণ্ডা কম আসবে। তবে শীতকালে কার্পেটে ধুলা জমে বেশি। তাই নিয়মিত পরিষ্কার করা জরুরি। কার্পেটের বদলে ফ্লোরম্যাটও ব্যবহার করতে পারেন চাইলে। বেশি শীতে ভারি কাপড় ধোওয়া সমস্যা। তাই জমিয়ে রাখা ময়লা বিছানার চাদর, জানালা দরজার পর্দা ইত্যাদি এখনই ধুয়ে শুকিয়ে রাখুন।

/এনএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।