ভোর ০৭:০১ ; মঙ্গলবার ;  ১৯ নভেম্বর, ২০১৯  

গাইবান্ধায় চুড়ি, পুতুল, চকলেট প্রতীক পরিবর্তনের দাবি

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

গাইবান্ধা প্রতিনিধি।।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের জন্য নির্ধারিত প্রতীক পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ গাইবান্ধা। রবিবার দুপুরে সংগঠনের জেলা শাখার নেতারা জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে দেওয়া এক স্মারকলিপিতে ওই দাবি জানান।

মহিলা পরিষদের জেলা সভাপতি আমাতুরনুর ছড়ার নেতৃত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলা সম্পাদক রিক্তু প্রসাদ, মহিল নেত্রী নাজমা শওকত, নিয়াজ আকতার ইয়াসমীন, কানিজ ফাতেমা প্রমুখ। গাইবান্ধায় প্রশাসনের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শামসুল আজম।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, দেশজুড়ে পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এক ধরনের উৎসবের আমেজ শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন। যাচাই-বাছাই শেষে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর ও মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে বিপুল সংখ্যক নারী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গণতন্ত্রের জন্য অবশ্যই এটি একটি শুভ দিক। তারপরও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের জন্য চুড়ি, পুতুল, চকলেট, গ্যাসের চুলা, ফ্রক, ভ্যনেটিব্যাগ, কাঁচি, হারমোনিয়াম, মৌমাছি ও আঙ্গুর নারীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন উপকরণ প্রতীক হিসেবে নির্ধারণ গোটা নারী সমাজের জন্য অপমানজনক। তাই বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ মনে করে পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা ও দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বেরিয়ে এসে তাদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রতীকগুলো পরিবর্তন করা প্রয়োজন।

/জেবি/এফএএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।