রাত ০৮:২৪ ; বুধবার ;  ১৫ আগস্ট, ২০১৮  

ইসি সরকারের নির্দেশে চলে: মঈন খান

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

নির্বাচন কমিশন সরকারের নিদের্শে চলে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান। কমিশন স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না বলে দাবি করেন তিনি।

মঈন বলেন, অতীতের নির্বাচনে এ কমিশন স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারেনি।  এবারের নির্বাচনেও তা পারবে না।

জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম দলের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জিয়াউর রহমানের মাজারে পুস্পস্তবক অর্পণ করতে গিয়ে এসব কথা বলেন আব্দুল মঈন।

শুক্রবার সকালে শেরে বাংলা নগর চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের মাজারে নেতাকর্মীদের সঙ্গে এছাড়া উপস্থিত ছিলেন  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলন হিসেবে পৌর নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ৮০ ভাগ বিজয় আমাদের হবে। আর জনগণ ভোট দিতে না পারলে শূন্য। 

তিনি বলেন, সরকারি দলের প্রার্থীদের আচরণবিধি লংঘন করাই এখন আচরণবিধিতে পরিণত হয়েছে।

সদ্য কারামুক্ত বিএনপির এই নেতা বলেন, নেতাকর্মীরা জেগে আছে এবং জেগে থাকতে হবে। সরকারের বাহিনী প্রতিদিন নেতাকর্মীদের বাসায় হানা দেয়। তাই তাদের জেগে থাকতে হয়। প্রয়োজন হলে নেতাকর্মীরা জীবন দিয়ে গণতন্ত্র রক্ষা করবে।

এসময় সংগঠনটির আহ্বায়ক ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, কলামিস্ট শামা ওবায়েদসহ কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন।

১৯৯৬ সালে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের নিয়ে এ সংগঠন গঠনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন তৎকালীন মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি কর্নেল অলি। পরবর্তীতে এর কার্যক্রম ক্রমশ ঝিমিয়ে এলে খালেদা জিয়ার নির্দেশে ২০০৭-২০০৮ এর দিকে শামা ওবায়েদ এই সংগঠনের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

সংগঠন প্রসঙ্গে শামা ওবায়েদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানরা উদ্বুদ্ধ হয়ে এই সংগঠনে কাজ করে যাচ্ছেন। নতুন প্রজন্মকেও এই সংগঠন প্রতিনিধিত্ব করে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, গণতন্ত্র, অর্থনৈতিক, সামাজিক সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও মুক্তির লড়াইয়ে প্রজন্ম দল কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান শামা।

তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে আহ্বান জানান।

/এসটিএস/এসএস/ এফএস/

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।