রাত ১১:২৮ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৮ জুলাই, ২০১৯  

ছবির গল্পে রাসমেলা

প্রকাশিত:

ফারুখ আহমেদ।।

সুন্দরবনের বিচ্ছিন্ন দ্বীপ দুবলার চর। ছোট্ট সুন্দর এই চরের বিশেষত্ব বছরের অর্ধেকটা সময় এই চর জলমগ্ন থাকে, বাকি ছয় মাসের জন্য চরটি জেগে ওঠে। সে সময় আশেপাশের এলাকার জেলেরা এখানে বসতি গড়ে। চলে মাছধরা ও মাছ শুকানো। সে সময় দুবলার চর হয়ে ওঠে শুঁটকির গ্রাম। শুঁটকির গ্রাম দুবলার চরে রাসপূর্ণিমা তিথিতে রাসমেলা ও পুণ্যস্নানের রয়েছে দীর্ঘ ঐতিহ্য। পশুর ও কুঙ্গা নদের মোহনায় জেগে ওঠা দুবলার চরে প্রতিবছর কার্তিক অগ্রহায়ণ পূর্ণিমা তিথীতে (বলা হয় রাসপূর্ণিমা) বসে তিনদিনের রাসমেলা। পূর্ণিমার দিন সকালে পাপমোচন ও পূণ্য লাভের আশায় সনাতন ধর্মাবলম্বিরা দলে দলে পূজা-অর্চনা পাঠ ও পুণ্যস্নান করেন। একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের উৎসব হলেও দিনে দিনে রাসমেলা হয়ে উঠছে সর্বজনীন  উৎসব। রাসমেলা ও পুণ্যস্নানে অংশগ্রহণ করতে প্রতিবছর দুবলার চরে জমায়েত হয় লক্ষাধিক পুণ্যার্থী ও দেশি-বিদেশি পর্যটক। এ বছর রাসপূর্ণিমা ছিল নভেম্বরের ২৬ তারিখ। ছবিতে বাংলা ট্রিবিউন পাঠকদের জন্য এবারের রাসমেলার এক ঝলক।

 

 

 

 

ছবি: লেখক

/এনএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।