দুপুর ০২:১৮ ; সোমবার ;  ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮  

পাকিস্তান গণহত্যা চালিয়েছিল: বিএনপি

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতকে ডেকে একাত্তরের নারকীয় নিপীড়ন অস্বীকার করার এক দিনের মধ্যেই দেশটির বক্তব্যের প্রতিবাদ করেছে বিএনপি। যদিও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসি হয়েছে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে সম্পৃক্ত থাকার প্রমাণে।

মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপির নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেছেন, পাকিস্তানি সৈন্যবাহিনী জেনোসাইড (গণহত্যা) ঘটিয়েছে, তাদের অ্যাট্রোসিটি (নৃশংসতা) ছিল। সুতরাং সত্যকে আড়াল করা যাবে না।

গতকাল সোমবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করে, ১৯৭১ সালে কোনও ধরনের অপরাধ ও যুদ্ধ সংক্রান্ত নৃশংসতার সঙ্গে পাকিস্তান জড়িত ছিল না।

মানবতাবিরোধী অপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলে বাংলাদেশে অবস্থিত পাকিস্তানের দূতাবাস এর বিরোধিতা করে বিবৃতি দেয়। এরপর বিবৃতির কড়া জবাব দিতে গত ২৩ নভেম্বরে ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত সুজা আলমকে তলব করে একটি আনুষ্ঠানিক চিঠি দেয় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এরপর গত সোমবার বাংলাদেশের আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদলিপি প্রত্যাখ্যান করে পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতি দেয়। এ নিয়ে সরকারের পক্ষে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আনুষ্ঠানিক অবস্থান করার আগেই প্রধান বিরোধীপক্ষ বিএনপি পাকিস্তানের কড়া প্রতিবাদ করল। 

বিএনপির মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির অবনতির ব্যাপারে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট এবং জাতিসংঘ পর্যন্ত গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। সংবাদপত্রে দেখেছি মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের করা বিবৃতির ব্যাপারে সরকার ‘বিরক্তি’ প্রকাশ করেছে। এটা বিরক্ত হওয়ার কিছু নেই। সরকারকে এসব সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে এবং আমাদের আন্তর্জাতিক বন্ধুদের তীব্র প্রতিক্রিয়ার জায়গায় মানবাধিকার তুলে ধরতে হবে।

/এসটিএস/এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।