রাত ১১:২৯ ; শুক্রবার ;  ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮  

মোড়কে পাটের ব্যবহার নিশ্চিতে অভিযান শুরু

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

চাল বাজারজাতকরণে পাটের মোড়ক ব্যবহার না করার দায়ে প্রথম অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত হয়েছে রাজধানীর কাওরানবাজারের হাজী রাইস ট্রেডার্স নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটিকে নগদ ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সোমবার থেকে ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার ও চিনি- এই ছয়টি পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার নিশ্চিতে এবং এ সম্পর্কিত আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাজধানীতে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছে সরকার।

সোমবার রাজধানী কাওরান বাজার থেকে এই অভিযান শুরু হয়। বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন। এসময় পুলিশ ও র‌্যাবের একটি টিম প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিল।

এর আগে রবিবার দুপুরে সচিবালয়ের সম্মেলন কক্ষে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা আজম জানান, ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার ও চিনির মোড়কে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না কৃত্রিম মোড়ক দ্বারা কোনও পণ্য মোড়কজাতকরণ, বিক্রয়, বিতরণ বা সরবরাহ করলে অনূর্ধ এক বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, সোমবার থেকে দেশের সড়ক, মহাসড়ক, চাল উৎপাদনকারী এলাকাসহ ঢাকার প্রবেশমুখ এবং সমগ্র দেশে এ অভিযান তদারকিতে ১০টি টিম গঠন করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র, পরিবেশ ও বন, নৌ পরিবহন, সড়ক পরিবহন, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, পাট অধিদপ্তর, পরিবেশ অধিদপ্তর, স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ, টিআইডব্লিউপিএ, বিআইডাব্লিউ পিসি, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন এবং র‌্যাবের সহায়তায় একসঙ্গে সাঁড়াশি অভিযান চালানো হচ্ছে।

দেশের পাটকল এবং পাট শ্রমিকদের উৎসাহ দিতেই সরকারের এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। ভ্রাম্যমান আদালত জানিয়েছে, এ অভিযান অব্যাহতভাবে চলতে থাকবে।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।