দুপুর ০১:০৬ ; বুধবার ;  ২২ মে, ২০১৯  

ফেসবুকের জন্য পড়শীর মন খারাপ

প্রকাশিত:

মাহমুদ মানজুর।।

মন খারাপের দিন কাটাচ্ছেন সময়ের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী সাবরিনা পড়শী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তার জনপ্রিয়তার ব্যারোমিটার কিন্তু বেড়েই চলেছে। ফেসবুক-ভাইবার হয়ে ইউটিউবে তার ভিডিও ফ্যান-ফলোয়ার অনেকটাই অবিশ্বাস্য। তবে, এর জন্য মোটেই তার মন খারাপ নয়।

তার জবানিতে, ‘জীবনে প্রথম একটা রবীন্দ্রসংগীত গেয়েছি। ধামরাইয়ের জমিদার বাড়িতে গিয়ে চড়া মূল্যে দৃষ্টিনন্দন একটি মিউজিক ভিডিও করেছি। অথচ সেটি প্রকাশ করতে পারছি না। এ নিয়ে খুব মন খারাপ। কবে নাগাদ গানটি সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ করতে পারব, সেটাও জানি না।’

কেন! সম্পাদনার গানটির ভিডিও পছন্দ হয়নি? নাকি নতুন করে গাইতে হবে। শেষ না হতেই শুরু করেন পড়শী। বললেন, ‘না, না, কী যে বলেন! সেই ছোটবেলায় বহুবার রবীন্দ্রসংগীত গেয়েছি। কিন্তু এখন আর সেভাবে গাওয়া হয়নি। এটি আমার ভালোলাগার গান। তাই গাওয়াতে সমস্যা হয়নি। এর অসাধারণ সংগীতায়োজন করেছেন সন্ধি। ভিডিওটাও হয়েছে পুরো রাবিন্দ্রীক অবয়বে। আমি নিশ্চিত ভিডিওটি দেখলে সবাই মুগ্ধ হবেন।’

তাহলে? প্রকাশ করতে বাধা কী? ফেসবুক-ভাইবার না হয় বন্ধ। ইউটিউব তো খোলা আছে। গান তো সেখানেই আপ করা হয়। জবাবে বলেন, ‘সেটা ঠিক আছে। চাইলে ইউটিউবে গানটি আপ করা যায়। কিন্তু এটা ভুলে গেলেও চলবে না, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো একে অপরের পরিপূরক। এখন ইউটিউবের মূল প্রচারণা চলে ফেসবুকে। ভাইবারও এখন বেশ গুরুত্বপূর্ণ। দুটোই বন্ধ। ফলে এখন ভিডিওটি প্রকাশ করা মানে বেশিরভাগ শ্রোতা-ভক্ত-দর্শকদের বঞ্চিত করা। সে জন্যই মন খারাপ করে বসে আছি। অপেক্ষা করছি, মুক্ত সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের।’

মুক্তিপ্রতিক্ষীত ‘আমারও পরানও যাহা চায়, তুমি তাই তুমি তাই গো’শীর্ষক এ গানটির ভিডিওতে পড়শীর সঙ্গে মডেল হিসেবে আছেন তৌহিদ আবীর রাজকুমার।

প্রসঙ্গত, নতুন ভিডিও প্রকাশ করতে না পারলেও পড়শী ও তার দল বর্ণমালা এখন বিরামহীন ব্যস্ত সময় পার করছেন স্টেজ শো নিয়ে।

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

/এমএম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।