ভোর ০৬:১৩ ; মঙ্গলবার ;  ১৯ নভেম্বর, ২০১৯  

লালমনিরহাটে দুই জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন

১ জনের ১০ বছর কারাদণ্ড

প্রকাশিত:

লালমনিরহাট প্রতিনিধি ।।

লালমনিরহাট আদালত চত্বরে জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশে’র (জেএমবি) বোমা হামলার মামলায় দুই জঙ্গিকে যাবজ্জীবন ও একজনের ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মিয়া মোহাম্মদ আলী আকবার আজিজি এ রায় ঘোষণা করেন।

২০০৫ সালে সারাদেশে জেএমবি’র সিরিজ বোমা হামলার অংশ হিসেবে ওই ঘটনা ঘটে।

যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, মনিরুজ্জামান ইকবাল ওরফে সেলিম ও মোস্তাফিজার ওরফে মোস্তাক মামুন। এছাড়া তাদের ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। এ মামলার অপর পলাতক আসামি জেএমবি সদস্য সাদেকুল ইসলামকে ১০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আলোচিত এই মামলা দায়েরের ১০ বছর পর আসামিদের উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করা হয়। রায় উপলক্ষে আদালত চত্বরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

লালমনিরহাট আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সকালে সারাদেশে একযোগে বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গি সংগঠন জেএমবি। এরই অংশ হিসেবে লালমনিরহাট আদালত চত্বর ও রেলস্টেশন এলাকায় বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় সংগঠনটি। এ ঘটনায় ওই দিনেই লালমনিরহাট সদর থানার তৎকালীন এসআই আলতাব হোসেন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে বিস্ফোরক আইনে মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ ২০০৬ সালের ২৯ অক্টোবর ঠাকুরগাঁও জেলার কাশেয়া গ্রামের মনিরুজ্জামান ইকবাল ওরফে সেলিম ও লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বৈরাতী গ্রামের মোস্তাফিজার ওরফে মোস্তাক মামুনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। পরবর্তী সময়ে রাষ্ট্র পক্ষ এ অভিযোগ পত্রের বিরুদ্ধে আদালতে নারাজি’র আবেদন করে।  

২০০৭ সালের ২১ জুলাই অভিযুক্ত ওই দু’জনের সঙ্গে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার দেবীনগর গ্রামের সাদেকুল ইসলামকে অভিযুক্ত করে একটি সম্পূরক অভিযোগ পত্র জমা দেয় পুলিশ। রায় ঘোষণার পরপরই কঠোর নিরাপত্তায় আসামিদের জেল হাজতে নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি মনিরুজ্জামান ইকবাল ওরফে সেলিম ও মোস্তাফিজার ওরফে মোস্তাক মামুনের বিরুদ্ধে  নীলফামারী জেলায় বিস্ফোরক আইনের অপর একটি মামলায় ৫০ বছর সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ রয়েছে বলে আদালত সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

 

/জেবি/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।