সকাল ১০:০৬ ; শুক্রবার ;  ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮  

বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বৃদ্ধিতে স্পেনের আগ্রহ প্রকাশ

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক অংশীদার স্পেন বাংলাদেশের অবকাঠামো ও পর্যটন খাতে বিনিয়োগ এবং বাণিজ্য বৃদ্ধিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

সচিবালয়ে বুধবার বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করে এ আগ্রহের কথা জানান বাংলাদেশস্থ স্পেনের রাষ্ট্রদূত ইডুয়ার্ডো ডি লাইগলেসিয়া। সাক্ষাৎ শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী উপস্থিত সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

এ সময়  উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের সচিবের দায়িত্বে নিয়োজিত অতিরিক্ত সচিব মোঃ শওকত আলী ওয়ারেছী, অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) মোঃ জহির উদ্দিন আহমেদ এবং রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান শুভাশিষ বসু প্রমুখ।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশের অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগের সুযোগ কাজে লাগাতে আগ্রহী স্পেন।

তিনি আরও বলেন, দুই দেশের পর্যটন খাতেও বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। পর্যটকরা একে অপরের দেশ ভ্রমণের মাধ্যমে উভয় দেশের পর্যটন খাত সমৃদ্ধ করতে ভূমিকা রাখতে পারে।

বাংলাদেশকে পর্যটন খাতের উন্নয়নে ‘আতিথেয়তা’ বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদানে স্পেনের আগ্রহের কথা জানান রাষ্ট্রদূত।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, রফতানি বাড়াতে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। ইতিমধ্যে ৩০ টির স্থান নির্বাচন করা হয়েছে। বিনিয়োগের জন্য স্পেন এর যে কোনো একটি বেছে নিতে পারে। 

বর্তমানে চট্রগ্রাম ইপিজেড-এ স্পেনের দুইটি কোম্পানির বিনিয়োগ রয়েছে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ লাভজনক ও নিরাপদ উল্লেখ করে তিনি বলেন, রফতানি পণ্য এবং এর বাজার সৃষ্টির জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ইতিমধ্যে তথ্য ও যোগযোগ প্রযুক্তি, ঔষধ, চামড়াজাত পণ্য, পাটজাত পণ্য, জাহাজ ও আসবাবপত্র নির্মাণ এবং কৃষিপণ্য রফতানিতে নগদ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

স্পেনের বাজারে চলতি বছর বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি ২ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, একক দেশ হিসেবে বাংলাদেশের রফতানির চতুর্থ বড় বাজার স্পেন। গত বছর স্পেনে শতকরা সাত ভাগ রফতানি প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।