রাত ০৮:৪৫ ; রবিবার ;  ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯  

কুড়িগ্রাম থেকে প্রথম দফায় ভারত গেলেন ৭২ জন

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি।।

কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহল থেকে প্রথম দলটি ভারতে পৌঁছেছে। জেলার সদ্যবিলুপ্ত ১২টি ছিটমহলের মধ্যে দুইটি ছিটমহলের (ফুলবাড়ি উপজেলার দাশিয়ারছড়া, ভুরুঙ্গামারী উপজেলার গাড়োলঝাড়া) ৭২ জন বাসিন্দা ভারতে যাওয়ার জন্য সকাল ১১ টায় ভুরুঙ্গামারী উপজেলার বাগভণ্ডার সীমান্তের অস্থায়ী চৌকিতে আসেন। সেখানে ট্রাভেল পাস পরীক্ষার পর দুপুর দেড়টায় আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের ভারতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়।

ভারতে তাদের বরণ করে নেন কোচবিহারের ডিএম পিউল গানাথনসহ বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনের প্রতিনিধি অভিজিত মিত্র। এ সময়

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কুড়িগ্রাম জেলা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম, ৪৫ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন কুড়িগ্রামের পরিচালক লে. কর্নেল মো. জাকির হোসেন, ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছির উদ্দিন মাহমুদ ও ভুরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন ভুইয়াসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় দুটি মিনিবাস ও দশটি পিকআপ নিয়ে তারা নিজ নিজ এলাকা থেকে বাগভাণ্ডারের উদ্দেশে রওনা হন।

একই ছিটের বাসিন্দা রশিদা ও তার স্বামী রবিউল যাচ্ছে দুই ছেলেসহ। রবিউলের বাড়ি বিলুপ্ত এই ছিটে হলেও রশিদার বাবার বাড়ি বাংলাদেশে ফুলবাড়ির বড়ভিটায়। মা সোনাভানকে ছেড়ে যেতে হচ্ছে রশিদার। পরিবারটির মতো চোখের জলে ভাসছে আরও অসংখ্য পরিবার।

২৪ নভেম্বর দ্বিতীয় দফায় ভারত যাবেন দাশিয়ারছড়ার ১১৫ জন। ২৬ নভেম্বর তৃতীয় দফায় যাবেন দাশিয়ারছড়ার ৭৮ জন।

কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, কুড়িগ্রাম জেলার ১২টি বিলুপ্ত ছিটমহল থেকে ৩০৫ জন ভারতে যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ২৬৫ জন।

/এইচকে/এসএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।