রাত ১১:১১ ; বুধবার ;  ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯  

ফেনীতে একরাম হত্যা মামলার বিচার শুরু

প্রকাশিত:

ফেনী প্রতিনিধি ।।

ফেনীর উপজেলা চেয়ারম্যান একরাম হত্যা মামলার বিচারিক কার্যক্রম মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী জেলা দায়রা জজ আদালতে শুরু হয়েছে। ফেনীর জেলা দায়রা জজ দেওয়ান মো. সফিউল্যাহ আদালত অভিযোগ পত্র আমলে নিয়ে বিচার কাজ শুরুর আদেশ দেন। এসময় গ্রেফতারকৃত আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। 

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌশলি (পিপি) অ্যাডভোকেট হাফেজ আহম্মেদ এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আদালত এই মামলার পরবর্তী তারিখ এখনও নির্ধারণ করেননি। তিনি নির্ধারিত তারিখে মামলাটির চার্জ গঠন করা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

এর আগে এই মামলার ৩৭ আসামিকে ফেনী কারাগার থেকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আনা হয়। 

ফেনী কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) আরিফ ইকবাল জানান, একরাম হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত ৪৩ আসামিকে মঙ্গলবার জেলা জজ আদালতে হাজির করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ফেনী কারাগার থেকে ৩৭ আসামি ও জামিনে থাকা ৫ আসামিসহ ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অধীনে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মামলার প্রধান আসামি বিএনপি নেতা মাহাতাব উদ্দিন আহম্মেদ চৌধুরী মিনার আদালতে হাজির হয়েছেন ।

এর আগে গত ১৩ অক্টোবর ফেনীর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মশিউর রহমান খান জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলাটি  স্থানান্তরের জন্য আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২০ মে ফেনী শহরের একাডেমি এলাকার বিলাসী সিনেমা হলের সামনে ফুলগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি একরামুল হককে দুর্বৃত্তরা প্রকাশ্যে গুলি করে, কুপিয়ে ও গাড়িসহ পুড়িয়ে হত্যা করে। হত্যার পর নিহতের ভাই রেজাউল হক জসিম বাদী হয়ে বিএনপি নেতা মাহাতাব উদ্দিন আহম্মেদ চৌধুরী মিনারের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৩০-৩৫ জনকে আসামি করে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। 

মামলার একশ’ দিন পর গত বছরের ২৮ আগস্ট ৫৬ জনকে আসামি করে পুলিশ আদালতে অভিযোগ পত্র (চার্জশিট) দাখিল করে।

আদালত আড়াই মাস পর গত বছরের ১২ নভেম্বর আলোচিত এ হত্যা মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করে। এ মামলায় পুলিশ ও র‌্যাব ৪৩ জনকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে ১৬ জন আসামি হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

/জেবি/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।