দুপুর ০২:২১ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

ডিসেম্বরের মধ্যে ট্যানারি না সরালে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি সরবরাহ বন্ধ

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

বৃষ্টি, হরতাল-অবরোধ, নাশকতা ইত্যাদি কারণে শিল্পনগরীর নির্মাণ কাজের অগ্রগতি হয়নি। চলতি ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সিইটিপি (কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার) কাজ শেষ হবে। এ সময়ের মধ্যে ১০০ ট্যানারি সাভারে স্থানারের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। যারা ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ট্যানারি সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে স্থানান্তর করতে পারবে না তাদের প্লটের বরাদ্দ বাতিল করা হবে। এর পর উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক হাজারীবাগের ওই ট্যানারিগুলোয় গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানিসহ সব ধরনের সেবা বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

মঙ্গলবার রাজধানীর মতিঝিলস্থ শিল্প মন্ত্রণালয়ে ট্যানারি শিল্প মালিকদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত যৌথসভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

সভায় উপস্থিত ছিলেন শিল্প সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বিসিক চেয়ারম্যান আহমদ হোসেন খান, বাংলাদেশ ফিনিস লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএফএলএলএফইএ) চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম আবু তাহের, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) চেয়ারম্যান মো. শাহিন আহমেদ প্রমুখ।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, হাজারীবাগের পরিবেশগত কারণে বিদেশী ক্রেতারা এখন কার্যাদেশ দিচ্ছেন না। এ অবস্থায় নিজেদের স্বার্থেই ওখান থেকে দ্রুত ট্যানারি স্থানান্তরে আগ্রহী ব্যবসায়ীরা।

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালে সাভারের কান্দিবৈলারপুর ও চন্দ্রনারায়ণপুর এবং কোরানীগঞ্জের চরনারায়ণপুর মৌজায় প্রায় ২০০ একর জমিতে ১ হাজার ৭৮ কোটি টাকা ব্যয়ে চামড়া শিল্পনগরী স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে লক্ষ্যে ট্যানারি শিল্প মালিকদের ১৫৫টি প্লট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।