দুপুর ০২:০২ ; মঙ্গলবার ;  ১৭ জুলাই, ২০১৮  

আমাদের জন্মদিন ২২ নভেম্বর: রুনা লায়লা

প্রকাশিত:

মাহমুদ মানজুর।।

উপমহাদেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা। আজ মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) তার জন্মদিন। এবার তিনি জন্মদিন কাটাবেন লন্ডনে। কিছুদিন আগে কণ্যা তানি লায়লার কাছে বেড়াতে যান সেখানে। জন্মদিনের আগেই ঢাকা ফেরার কথা ছিল, তবে লন্ডন প্রবাসী দুই নাতির আবদারে ফেরা হয়নি। তাই রুনা লায়লার এবারের জন্মদিন কাটবে কণ্যা ও দুই নাতির সঙ্গে লন্ডনে, একটু অন্য আবহে।

ফেসবুকের মাধ্যমে সোমবার সন্ধ্যায় বাংলা ট্রিবিউনকে রুনা লায়লা বলেন, ‘দুই নাতির টানেই আমি বার বার লন্ডনে ছুটে আসি। তবে এই জন্মদিন ওদের সঙ্গে থাকার পরিকল্পনা ছিলনা। মূলত ওদের আবদারেই থেকে গেলাম। তাছাড়া জন্মদিন বিষয়ে এবার আমরা নানি-নাতি (বড় নাতি) একটা নতুন পরিকল্পনা করেছি।’

দুই নাতির সঙ্গে...

কেমন সেই পরিকল্পনা? সংগীত জীবনের ৫০ বছর পেরিয়ে আসা এই কিংবদন্তি শিল্পী বলেন, ‘আমার জন্মদিন ১৭ নভেম্বর। আর বড় নাতি জাইনের ২৪ নভেম্বর। তাই নানি-নাতি যৌথভাবে একটা জন্মদিন চূড়ান্ত করেছি। এবার আমাদের আনুষ্ঠানিক জন্মদিন ২২ নভেম্বর। এই নতুন জন্মদিন নিয়ে আমরা দুজনে বেশ আনন্দিত।’

৮০’র দশকে...

রুনা লায়লা দেশে ফিরবেন ১২ ডিসেম্বর। জন্মদিন প্রসঙ্গে তিনি সবার কাছে সুস্থ থাকার প্রত্যাশায় দোয়া চেয়েছেন। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেছেন, ‘আপনারা ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন এবং আমার জন্য দোয়া করবেন। যেন আমিও সুস্থ থাকি এবং আপনাদের আরও অনেক বছর গান শোনাতে পারি।’

একসঙ্গে উপমহাদেশের তিন সংগীত কিংবদন্তি আবিদা-আশা-রুনা

প্রসঙ্গত, টানা পাঁচ দশকের সংগীত জীবনে ১৯টি ভাষায় অসংখ্য গান গেয়েছেন গুণী এই সংগীতশিল্পী। এ পর্যন্ত তার গানের সংখ্যা ১০ হাজারেরও বেশি। প্রয়াত সংগীত পরিচালক সুবল দাসের সুরে নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘স্বরলিপি’ ছবিতে ‘গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে’ গানের মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রথম প্লেব্যাক করেন তিনি। তবে মাত্র সাড়ে ১২ বছর বয়সে পাকিস্তানের ‘যুগনু’ ছবিতে রুনা লায়লা প্রথম প্লেব্যাক করেন। এরপর পাকিস্তান ও বাংলাদেশের অসংখ্য ছবিতে তিনি প্লেব্যাক করেছেন।

...সঙ্গে কন্যা তানি লায়লা

সংগীতে আকাশছোঁয়া সাফল্য অর্জন করা এই শিল্পী নাচেও বেশ পারদর্শী ছিলেন। চার বছর বুলবুল একাডেমি করাচিতে ভরত নাট্যম, কত্থক, কত্থকলি শিখেছিলেন এ তারকা। নন্দিত এই শিল্পী অভিনয় করেছেন ‘শিল্পী’ নামক চলচ্চিত্রেও। পেয়েছেন নানা পুরস্কার। এসবের মধ্যে রয়েছে দেশ থেকে চারবার জাতীয় চলিচ্চত্র পুরষ্কার, স্বাধীনতা দিবস পুরষ্কার। এছাড়া ভারত থেকে পেয়েছেন সায়গল পুরষ্কার। পাকিস্তান থেকে অর্জন করেছেন নিগার, ক্রিটিক্স, গ্র্যাজুয়েটস পুরস্কার সহ জাতীয় সঙ্গীত পরিষদ স্বর্ণপদক।

মা ও স্বামীর সঙ্গে...

নব্বই দশকে গিনেস বুকে স্থান পাওয়া রুনা লায়লার জন্ম ১৯৫২ সালের ১৭ নভেম্বর সিলেটে। এই জীবন্ত কিংবদন্তির জন্মদিনে বাংলা ট্রিবিউন পরিবারের পক্ষ থেকে অনেক শুভেচ্ছা ও শুভ কামনা।

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন ও শিল্পীর ফেসবুক অ্যালবাম থেকে সংগৃহীত

/এমএম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।