সকাল ১১:১৯ ; বুধবার ;  ১৩ নভেম্বর, ২০১৯  

অক্টোবরে মূল্যস্ফীতি কমেছে

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

অক্টোবর মাসে পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে। এ সময় মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ১৯ শতাংশে। যা সেপ্টেম্বরে ছিল ৬ দশমিক ২৪ শতাংশ। হিসেব অনুযায়ী আগের মাস থেকে তা কমেছে দশমিক শূন্য ৫ ভাগ।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক বৈঠক শেষে আয়োজিত এক সংবাদ বিবৃতিতে এ সব তথ্য প্রকাশ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হিসাব অনুযায়ী এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

বিবিএসের মূল্যস্ফীতির তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা যায়, পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে অক্টোবর মাসে খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে  ৫ দশমিক ৮৯ ভাগ। সেপ্টেম্বরে যা ছিল ৫ দশমিক ৯২ ভাগ। অক্টোবর মাসে খাদ্যবহির্ভুত পণ্যে মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৬৭ ভাগ। সেপ্টেম্বরে ছিল ৬ দশমিক ৭৩ ভাগ।

বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম কম থাকায় দেশের বাজারের মূল্যস্ফীতিতে প্রভাব পড়েছে। এ কারণেই মূল্যস্ফীতি অক্টোম্বর মাসে কমেছে। শীতকালীন সবজি পুরোদমে বাজারে আসতে শুরু করেছে, এর ফলে নভেম্বরের মূল্যস্ফীতি আরও কমবে বলে জানান পরিকল্পনামন্ত্রী।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, চলতি বছর প্রাক্কলিত মূল্যস্ফীতি ধরা হয়েছে ৬ দশমিক ২ ভাগ। বছরের শুরু থেকে এ ধারা অব্যাহতভাবে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুস্তফা কামাল। 

গ্রামে সেপ্টেম্বর মাসের সাধারণ মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৮৬ ভাগ। তা কমে অক্টোবর মাসে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৮২ ভাগ। সেপ্টেম্বরে খাদ্যপণ্যে মূল্যস্ফীতি ছিল ৫ দশমিক ২৬ ভাগ। যা অক্টোবরে কমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ২৩ ভাগ। এ ছাড়া, খাদ্যবর্হিভুত পণ্যে সেপ্টেম্বর মাসের মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ দশমিক ৯৯ ভাগ অক্টোবরে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৯০ ভাগ।

শহরেও মূল্যস্ফীতি হার সবদিকেই কমেছে। অক্টোবর মাসের সাধারণ মূল্যস্ফীতির হার ৬ দশমিক ৯১ভাগ। খাদ্যপণ্যে ৭ দশমিক ৪৪ ভাগ এবং খাদ্যবর্হিভুত ৬ দশমিক ৩৩ ভাগ।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।