সকাল ১১:২০ ; বুধবার ;  ১৩ নভেম্বর, ২০১৯  

৬১টি সেতু নির্মাণসহ ১০ প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

দেশের পশ্চিমাঞ্চলের অবকাঠামো উন্নয়নে ছোট ও মাঝারি আকারের ৬১টি (৩ হাজার ৮৮০মটিার) সেতু নির্মাণসহ ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এ জন্য প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৬ হাজার ২৫০ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ২ হাজার ৬৭২ কোটি ৪৫ লাখ এবং প্রকল্প সাহায্যের আওতায় ৩ হাজার ৫৭৮ কোটি ১৩ লাখ টাকা যোগান দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে এ সব প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপার্সন ও ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন, যোগাযোগ ও অবকাঠামো উন্নয়নে দেশের পশ্চিমাঞ্চলের জন্য ‘ওয়েস্টার্ন বাংলাদেশি ব্রিজ ইম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট’ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ২ হাজার ৯১১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে যোগান দেওয়া হবে ১ হাজার ৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। বাকি অর্থ স্বল্প সুদে ঋণ দেবে জাইকা। প্রকল্পটি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর বাস্তবায়ন করবে।  

সড়ক যোগাযোগের পাশাপাশি রেল সেবার মান বাড়াতে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য মিটার গেজ এবং ব্রডগেজ প্যাসেঞ্জার ক্যারেজ সংগ্রহ’ প্রকল্পের আওতায় ২০০টি মিটার গেজ এবং ৫০টি ব্রড গেজ কোচ কেনা হবে। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৩৭৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য লোকমোটিভ রিলিফ ক্রেন এবং সিমুলেটর সংগ্রহ’ প্রকল্পের আওতায় ১০টি ইঞ্জিন এবং ৪টি দুর্ঘটনা উদ্ধার ক্রেন এবং একটি সিমুলেটর কেনা হবে। এতে ব্যয় হবে ৭৩৩ কোটি টাকা। প্রকল্প দুইটির বাস্তবায়নকাল জুন, ২০১৯।

অনুমোদন দেওয়া অন্যান্য প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে, ন্যাশনাল প্রোডাটিভিটি অরগানাইজেশন (এমপিও) ও প্যাটেন নকশা ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তরের অফিস ভবন নির্মাণ। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকা ব্যয়।

ঢাকা জেলার দোহার উপজেলাধীন আওরাঙ্গবাদ হতে ব্রাহাবাজার ঘাট পর্যন্ত পদ্মা নদীর বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্প। এতে ব্যয় হবে  ২১৭ কোটি ৬২ টাকা ব্যয়।  ১৭২ কোটি ৬৫ টাকা ব্যয়ে নোয়াখালীর সোনাপুর থেকে ফেনীর জোরারগঞ্জ সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প।

শেরেবাংলা নগরে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মকর্তা-কর্মাচারীদের জন্য ৪৪৮টি ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ৩৩ শতাংশ বৃদ্ধি করে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা।

এ ছাড়া, ২৫৬ কোটি টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস-এর উন্নয়ন, ১১০ কোটি ৯০ টাকা ব্যয়ে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন (১ম পর্যায়ের ২য় সংশোধনী) এবং ২০৯ কোটি ৫২ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন প্রকল্প(১ম সংশোধনী) অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।