দুপুর ০২:৩৩ ; শুক্রবার ;  ১৮ অক্টোবর, ২০১৯  

তুলসী রানীসহ সংখ্যালঘু নিযার্তন: আরও একজন আটক

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

ফেনী প্রতিনিধি।।

ফেনী মাথিয়ারা জেলে পাড়ায় তুলসী রানীসহ সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের ঘটনায় শহীদুল হক শহীদ নামে আরও একজনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে শহরতলীর পাঁচগছিয়া বাজার এলাকা হতে তাকে আটক করে ফেনী মডেল থানার পুলিশ ।

ফেনী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুব মোর্শেদ আটকের বিষয় নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ মামলার আসামি রাজু ও জাবের আদালতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে শহীদুলের নাম উল্লেখ করায় তাকে আটক করা হয়েছে।

শহীদকে পুলিশ জিজ্ঞাসবাদ করছে বলে জানান তিনি ।

এর আগে সংখ্যালঘু নির্যাতনের ঘটনায় রাজু ও জাবেদ নামে দুই আসামি আদালতে ঘটনার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়। এই মমালার এজাহারভুক্ত ১৬ আসামির মধ্যে ৬ জনসহ  মোট ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । তবে ঘটনার মূল আসামি ইকবাল ও সম্রাটকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ অক্টোবর রাতে লক্ষ্মীপূজায় আতশবাজি ফোটানোর কথিত অপরাধে স্থানীয় সরকার দলীয় সমর্থক ইকবাল ও সম্রাটের নেতৃত্বে দুর্বৃত্তরা ফেনী সদরের মাথিযারার জেলে পাড়ায় তাণ্ডব চালায় । এতে নিরীহ জেলে রবীন্দ্রকে বাঁচাতে গিয়ে তার অন্তঃস্বত্তা স্ত্রী তুলসী রানীর তলপেটে লাথি মারে দুর্বৃত্তরা। এতে অতিরক্ত রক্ত ক্ষরণে তুলসীর গর্ভের ৭ মাসের সন্তান মারা যায়। এ ঘটনায় জেলেপাড়ার আরও ২০-২২ জন আহত হয়। পরে জহুর লাল দাস বাদী হয়ে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন। তুলসী রানী বর্তমানে ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

/এএ/এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।