ভোর ০৬:০৫ ; বুধবার ;  ২৩ অক্টোবর, ২০১৯  

তুলশী রানীসহ সংখ্যালঘু নিযার্তনে আরেক আসামির স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত:

ফেনী প্রতিনিধি।।

ফেনী মাথিয়ারা জেলে পাড়ায় তুলশী রানীসহ সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের মামলার আরেক আসামি জাবেদ দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনের আদালতে এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। 

অপর গ্রেফতারকৃত জনি ও জুয়েল জবানবন্দি না দেওয়ায় আদালত জাবেদসহ তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ফেনী মডেল থানার ওসি মাহবুব মোর্শেদ এর সত্যতা নিশ্চিত করেন । 

পুলিশ জানায়,তাদের সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে ।

মঙ্গলবার বিকালে পুলিশ জবানবন্দির জন্য তিনজনকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনের আদালতে হাজির করে। 

আদালত সূত্রে জানায়,সংখ্যালঘু নির্যাতন মামলার আসামি জাবেদ ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে বলেন, গত বুধবার (২৮ অক্টোবর) ইকবালকে জেলে পাড়ার লোকজন মারধর করছে এমন সংবাদ পেয়ে সে ইকবালের আহ্বানে ঘটনার স্থলে যায়। ইকবালের সঙ্গে সম্রাটসহ অপরিচিত অনেক লোক হামলায় অংশ নেয়। পরে সে জানতে পারে আজানের সময় জেলে পাড়ার লোকেরা অতিরিক্ত আতশবাজি ফুটানোর কারণ জিজ্ঞাস করতে গেলে এ ধরনের ঘটনা ঘটে । 

মামলার কর্মকর্তা ফেনী মডেল থানার ওসি মাহবুব মোর্শেদ জানায়,এর আগে রাজু নামের আরেক আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

তিনি আরও জানায়,এই মামলার এজাহারভুক্ত ১৬ আসামির মধ্যে ৬ জনসহ  মোট ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মূল আসামি ইকবাল ও সম্রাটকে গ্রেফতারে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ ।

/জেবি/ এএইচ /

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।