সকাল ০৯:২৬ ; বৃহস্পতিবার ;  ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯  

বাল্যবিয়ে করতে গিয়ে শ্রীঘরে বরসহ তিনজন

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

নীলফামারী প্রতিনিধি॥

সবকিছুই ছিল ঠিকঠাক। বরযাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতে উপস্থিত বরপক্ষ। এমন সময় বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হলেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দেখা গেল কনের এখনও বিয়ের বয়সই হয়নি। কনের বয়স ১৫, পড়েন দশম শ্রেণিতে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বর,বরের বাবা ও কনের বাবাকে আটক করে শ্রীঘরে পাঠানোর রায় দেন।

ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ডিমলা সদরের জেলা পরিষদ স্কুল এ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৫)বিয়ে করতে একই উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের পূর্ব খড়িবাড়ী গ্রামের বিশা ভুইয়ার ছেলে লেবু ভুঁইয়া (২৬)বরযাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতে আসেন।

খবর পেয়ে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা সহকারী কর্মকর্তা (ভুমি) মিল্টন চন্দ্র রায় সেখানে অভিযান চালিয়ে বর,বরের বাবা ও কনের বাবাকে আটক করেন। এসময় তিনি তাদের তিনজনকে তিনদিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এদিকে, আরেকটি বাল্য বিয়ের দেওয়ার সময় ডিমলা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে (১৪) বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সুন্দরখাতা গ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে পণ্ড করে দেন। এ সময়  কনের দাদা নমির উদ্দিনকে (৫৫)আটক করে তাকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ডিমলা থানার ওসি রহুল আমিন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

/এএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।