দুপুর ০২:২১ ; মঙ্গলবার ;  ১৯ নভেম্বর, ২০১৯  

ডিএসইতে সব সূচক কমেছে, লেনদেন ৭৪% বেড়েছে

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

ডিএসইতে গত দুই দিনের লেনদেন ছিল বিগত প্রায় সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। পাশাপাশি টানা তিন কার্যদিবস ধরে কমেছিল সবগুলো মূল্য সূচক।

অথচ আজ বুধবার এ বাজারে সবগুলো মূল্য সূচক কমলেও টাকার অঙ্কে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে ৭৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

অপর বাজার সিএসইতে বুধবার সবগুলো মূল্য সূচক কমলেও টাকার অঙ্কে লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে ১৮ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

এ ছাড়া, এ দিন দুই বাজারে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে অধিকাংশের শেয়ার দর কমেছে। উভয় এক্সচেঞ্জ সূত্রে এ সব তথ্য জানা যায়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার ডিএসইএক্স সূচক কমেছে প্রায় ১৪ পয়েন্ট। ফলে দিনের লেনদেন শেষে সূচকটি নেমে আসে ৪ হাজার ৫৬৪ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক প্রায় ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯২ পয়েন্টে। আর প্রায় ৫ পয়েন্ট কমে ডিএস৩০ সূচক রয়েছে ১ হাজার ৭২৫ পয়েন্টে।

এ দিন ডিএসইতে ৩১৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১৫১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৯৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। এ দিন বাজারে লেনদেন হয়েছে ৪৫৬ কোটি ৪ লাখ টাকা। বুধবার লেনদেন হয়েছিল ২৬২ কোটি ৫৬ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে এ দিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, স্কয়ার ফার্মা, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি, ইফাদ অটোজ, এসিআই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, গ্রামীণফোন, বেক্সিমকো ফার্মা, বারাকা পাওয়ার এবং সিঙ্গার বাংলাদেশ।

সিএসই

চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে (সিএসই) বৃহস্পতিবার সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৪১ পয়েন্ট। ফলে দিনের লেনদেন শেষে সূচকটি নেমে আসে ১৩ হাজার ৯৫৩ পয়েন্টে। এ ছাড়া, সিএসই৩০ সূচক ৪৯ পয়েন্ট এবং সিএসইএক্স ২৪ পয়েন্ট কমেছে।

এ দিন সিএসইতে ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৮টির, কমেছে ১৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির।

বৃহস্পতিবার সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৪ কোটি ১৫ লাখ টাকা। এ দিন বাজারে ২৬ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। বুধবার লেনদেন হয়েছিল ২২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে এ দিন সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ৫ কোম্পানি হলো শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি, এমারেল্ড অয়েল, মোজাফ্ফর হোসেন স্পিনিং মিল, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, এবং খুলনা পাওয়ার কোম্পানি।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।