সকাল ০৯:২২ ; শুক্রবার ;  ১৭ আগস্ট, ২০১৮  

শিশুকে খাওয়ানোর কৌশল

পুষ্টিবিদের পরামর্শ

প্রকাশিত:

পুষ্টিবিদ আদিবা ফারজিন

লাইফস্টাইল ডেস্ক।।

আজকাল মায়েদের খুব চেনা একটি অভিযোগ “আমার বাচ্চা খায় না”। বাচ্চারা সারাদিন খাবে এটা যেমন ঠিক না একবেলা খাবার না খেলেই

অস্থির হয়ে উঠাও ঠিক না। আজ শিশুর সঠিক খাদ্যাভ্যাসের জন্য করণীয় সম্পর্কে বলছেন পুষ্টিবিদ আদিবা ফারজিন।

  • শিশুর জন্য অবশ্যই বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিকর খাবার সঠিক পরিমানে নিশ্চিত করতে হবে। যেমন-
    • দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার
    • ডিম , মাছ-মাংস
    • ডাল ও বাদাম
    • রঙ্গিন শাকসবজি ফলমূল
    • ভাত, রুটি জাতীয় শ্বেতসার খাবার
    • তেল ও চর্বি জাতীয় খাবার

 

  • শিশুর খাওয়ার সময় নির্ধারণ করতে হবে। যেমন তিন বেলা প্রধান খাবারের পাশাপাশি দুবার নাস্তা জাতীয় খাবার দিতে হবে।
  • শিশুর বয়স ও চাহিদা অনুযায়ী খাবারের পরিবেশনের পরিমান বা কোন খাবার কতটুকু খাবে তা নির্ধারণ করতে হবে।
  • টিভি বা কম্পিউটারের সামনে বসে খাওয়া বন্ধ করতে হবে।
  • শিশুর টিভি বা কম্পিউটার দেখা কমিয়ে তাকে অন্যান্য খেলাধুলা করতে দিতে হবে যাতে তার শারীরিক পরিশ্রম হয়।
  • পরিবারের সকলের সাথে বসে খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।
  • শিশু অনুকরণপ্রিয় তাই তার সামনে অন্যরাও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ করুন।
  • খাবার তাড়াহুড়া করে না খেয়ে আস্তে আস্তে চিবিয়ে খেতে হবে।
  • চিপস, কোক, জুস ও ফাস্টফুড জাতীয় খাবার বন্ধ করতে হবে।
  • খাবার কেনা ও খাবার রান্নায় শিশু অংশগ্রহণ করলে তার খাওয়ার প্রতি আগ্রহ বাড়বে।
  • প্রতিদিন একঘেয়ে খাবার না দিয়ে বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিকর খাবার দিতে হবে।
  • খাবারকে আকর্ষণীয় করার জন্য বিভিন্ন রঙের শাকসবজি, ফলমূল ব্যবহার করে নানারকম আকৃতি করে দেয়া যেতে পারে।
  • শিশু না খেলে তাকে ধমক না দিয়ে কেন খাচ্ছে না তা বোঝার চেষ্টা করুন।
  • বয়স অনুযায়ী শিশুর ওজন উচ্চতা ও মানসিক বিকাশ ঠিক আছে কিনা তা খেয়াল করুন।
  • বারবার স্ন্যাক্স  জাতীয় খাবার দেয়া যাবে না যা তার প্রধান খাবার খাওয়াকে বাধা দেয়।
  • শিশুকে অন্যান্য কোমল পানীয় না দিয়ে পানি পান করার অভ্যাস করতে হবে।
  • খাবারকে তিরস্কার বা পুরস্কার হিসেবে ব্যবহার করবেন না। যেমন- “সবজি খাও তাহলে চকলেট দিব”। এতে সে চকলেটকে ভাল এবং সবজিকে খারাপ ভাববে।
  • খাবারে অতিরিক্ত লবণ ও চিনি ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।
  • বাইরের খাবার না খেয়ে ঘরে তৈরি খাবারে অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।
  • অন্য শিশুদের সাথে খাওয়ানোর চেষ্টা করুন।

 

ছবি: শামা এবং সানির একমাত্র সন্তান জারিফ সুষ্ঠুভাবে বেড়ে উঠছে সঠিক আহারের কারনেই। 

আরএফ 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।