ভোর ০৬:০৩ ; মঙ্গলবার ;  ১৯ নভেম্বর, ২০১৯  

সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা অনুমোদন

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

সপ্তম পঞ্চবার্ষিক (২০১৫-২০) পরিকল্পনার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। ২০১৫-১৬ অর্থবছরকে ভিত্তি ধরে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৩১ লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকা। এর ৭৭ দশমিক ৩০ শতাংশ আসবে বেসরকারি খাত থেকে, আর সরকারি খাত থেকে যোগান দেওয়া হবে ২২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভা এটি অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় পরিকল্পনা কমিশনের জ্যেষ্ঠ সচিব ও পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. শামসুল ইসলাম এ পরিকল্পনার ওপর একটি ডিজিটাল প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন।

এবারের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার প্রতিপাদ্য হলো ‘প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিতকরণ, নাগরিকের ক্ষমতায়ন।’

সভা শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, “দারিদ্রের হার বর্তমানের ২৪ দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে ১৮ দশমিক ৬০ শতাংশে নামিয়ে আনা হবে। সামাজিক সুরক্ষা খাতে ব্যয় জিডিপি’র ২ দশমিক ০২ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২ দশমিক ৩০ শতাংশ উন্নীত করা হবে। একই সঙ্গে পাঁচ বছরের ১ কোটি ২৯ লাখ কর্মসংস্থান হবে বলে আশা করছি।”

তিনি বলেন, “এবারের পরিকল্পনায় গড়ে প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৭ দশমিক ৪০ শতাংশ।রফতানি আয় বর্তমানের ৩০ দশমিক ৭০ বিলিয়ন ডলার থেকে বাড়িয়ে আগামী পাঁচ বছরে ৫৪ দশমিক ১০ বিলিয়ন ডলারের উন্নীত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।”

পরিকল্পনা বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় অর্থের উৎস বিষয়ে মুস্তফা কামাল বলেন, “মোট বিনিয়োগের ৯০ দশমিক ৪০ ভাগ অভ্যন্তরীণ সম্পদ থেকে যোগান দেওয়া হবে। বাকি ৯ দশমিক ৬০ ভাগ বৈদেশিক উৎস থেকে সংগ্রহ করা হবে।”

এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন, “মোট বিনিয়োগ বর্তমান জিডিপি’র ২৮ দশমিক ৯০ ভাগ থেকে ২০২০ সালে তা জিডিপি’র ৩৪ দশমিক ৪০ ভাগে উন্নীত করতে হবে। এ সময় মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৫০ ভাগে নামিয়ে আনতে হবে। এ জন্য ২০২০ নাগাদ রাজস্ব ও জিডিপি’র অনুপাত বর্তমানের ১০ দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৬ দশমিক ১০ ভাগে উন্নীত করতে হবে।”

অধ্যাপক ড. ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ-এর নেতৃত্বে গঠিত ‘অর্থনীতিবিদ প্যানেল’ এবারের পরিকল্পনাটি তৈরি করেন।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।