দুপুর ০৩:০৭ ; রবিবার ;  ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮  

হ্যাপি বার্থ ডে টু বিগ বি

প্রকাশিত:

বিনোদন ডেস্ক।।

আজ (১১ অক্টোবর) বলিউড শাসক অমিতাভ বচ্চনের ৭৩তম জন্মদিন। এখনও থামার বয়স হয়নি তার। ছুটছেন সমান গতিতে। মাত করছেন সর্বস্তরে।

১৯৬৯ সালে মৃণাল সেনের জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ছবি ‘ভুবন সোম’ ছবিতে ভাষ্যকারের ভূমিকা পালন করেছিলেন৷ এরপরেই ‘সাত হিন্দুস্তানি’ ছবিতে প্রথম স্ক্রিনে আসার সুযোগ৷ ১৯৭১ সালে মুক্তি পায় বিখ্যাত ছবি ‘আনন্দ’৷ সেসময় বলিউডের সুপারস্টার রাজেশ খান্নার সঙ্গে প্রথম স্ক্রিন শেয়ার করা৷ এই ছবির পরে আর পিছনে তাকাতে হয়নি৷ ‘আনন্দ’ ছবিতে এক চিকিৎসকের ভূমিকায় অভিনয় করে ছিনিয়ে নেন ফিল্মফেয়ার সেরা সাপোর্টিং অভিনেতার অ্যাওয়ার্ড৷ অনেকে বলেন ‘আনন্দ’ ছবি থেকেই ধ্বংসের মুখে পড়েন রাজেশ খান্না আর তার একমাত্র কারণ নাকি ছয় ফুট লম্বা, রোগা এই মানুষটি! যিনি বলিউডের জীবন্ত শীর্ষ কিংবদন্তী অমিতাভ বচ্চন৷

সরকারি চাকরি ছেড়ে দিনের পর দিন স্টুডিও চত্বর ঘুরে বেড়িয়েছেন একটা কাজের জন্য৷ অমিতাভ জানিয়েছেন, বাবা হরিবংশ রাই বচ্চনের প্রেরণাতেই জীবনে কখনও হারতে শেখেননি তিনি৷ সত্যিই সেদিন হার মেনে নিলে হয়ত ভারতের ‘বিগ বি’ কে গোটা ভারতবাসীই হারাত৷ ‘আনন্দ’ সুপার হিট হওয়ার পরেই একের পর এক ছবি দিয়ে অমিতাভ জিতে নেন দর্শকের মন৷ জয় করে চলেছেন আজও। 

১৯৭৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘জঞ্জির’ ছবিতে এক কড়া পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় দেখা যায় তাকে৷ এই ছবির পরেই তাকে বলিউডের ‘অ্যাংরি ইয়ং ম্যানে’র তকমা দেন অনেকে৷ সেবছরই জয়া ভাদুরীকে বিয়ে করেন অমিতাভ৷ বিয়ের একমাস পরেই এই নবদম্পতির ছবি ‘অভিমান’ আবার সুপারহিট৷ ‘নমক হারাম’ ছবিতে ফের রাজেশ খান্নার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেন অমিতাভ৷ ১৯৭৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘দিওয়ার’য়ে অভিনয় করে সেরা অভিনেতার পুরস্কার পান৷ এই ছবির সেই বিখ্যাত সংলাপ ‘মেরে পাস মা হ্যায়’ আজও সকলের মুখে মুখে৷ একই সালে মুক্তি পায় ‘শোলে’৷ এই ছবিটি সেসময়ের ভারতীয় চলচিত্র্র জগতের সবচেয়ে বড় ছবি হয়ে দাঁড়ায়৷ এখনও পর্যন্ত দুই শতাধিক ছবিতে কাজ করেছেন অমিতাভ৷ সংখ্যা এবং সফলতার বিচারে এই পরিসংখ্যান বিশ্বের যে কোনও তারকার কাছেই স্বপ্নের কাছাকাছি।

বচ্চন পরিবার

অমিতাভের ছবির তালিকা শুরু করলে শেষ করাটা মুশকিল৷ এখনও বলিউডের স্ক্রিন কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি৷ ২০০০ সালে লন্ডনের মাদাম তুসো মিউজিয়ামে স্থান পায় অমিতাভ বচ্চনের মোমের মূর্তি৷ তিনিই প্রথম এশিয় যার মূর্তি পৌঁচেছে লন্ডনে৷ দীর্ঘ চার দশক ধরে বলিউডের এই অভিনেতা দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন ভারতের চলচিত্র জগতে৷ চুলে পাক ধরেছে, চামড়া কুঁচকে গেছে- আজও তিনি বলিউডের বড় শাসক আর সর্বোচ্চ শ্রদ্ধার পাত্র হয়ে ধরা দিচ্ছেন সবার কাছে৷ 

অমিতাভ-রেখা

২০১৩ সালে হলিউডের ‘দ্য গ্রেট গ্যাটসবাই’ ছবিতে একটি ছোট্ট ভূমিকায় অভিনেতা লিওনার্দো দ্য কাপ্রিওর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেন বিগ বি৷ শুধু ফিল্ম নয় টেলিভিশনের জগতেও অমিতাভের আসা যাওয়া রয়েছে৷২০০০ সাল থেকে টেলিভিশনের সবচেয়ে সফল টেলিশো ‘কৌন বানেগা ক্রোড়পতি’৷ মাঝে একটি সিজনে শাহরুখ খানকে নিয়ে আসা হলেও ফের আমিতাভকেই হাল ধরতে হয় এই শোটির৷ দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে এই শোয়ের একমাত্র ইউএসপি অমিতাভ বচ্চন৷ শুক্রবার থেকে শুরু করেছেন ‘আজ কি রাত হ্যায় জিন্দেগি’ নামের আরেকটি টিভি অনুষ্ঠানের শ্যুটিং। যার প্রিমিয়ার চমক আসছে ১৮ অক্টোবর। অনেকেই ধারণা করছে বিগ বি’র ৭৩তম জন্মদিনের বড় উপহার হয়ে আসেছে এই টিভি শো’টি।

১৯৪২ সালের ১১ অক্টোবর উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদে জন্মেছিলেন৷ আর আজ মায়ানগরীর বিখ্যাত ‘প্রতীক্ষা’র মালিক তিনি৷ দীর্ঘ ৭২ বছরের জীবনে অনেক টানাপোড়েনের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে তার৷ তবুও মাথা উঁচু করে আজও নিজের জায়গাটা বজায় রেখেছেন৷

‘পা’ ছবির দৃশ্যে পিতা-পুত্র

/এস/এমএম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।