রাত ০৫:৩০ ; শনিবার ;  ১৯ অক্টোবর, ২০১৯  

এমপি লিটনের বিরুদ্ধে এবার হামলা ও লুটপাটের মামলা

প্রকাশিত:

গাইবান্ধা প্রতিনিধি।।

এবার হামলা, লুটপাট ও ভাঙচুরের অভিযোগে গাইবান্ধা-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মো.মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনসহ ১০ জনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের উত্তর শাহাবাজ গ্রামের হাফিজার রহমানের বাড়িতে ভাঙচুর এবং লুটপাটের অভিযোগ এনে রবিবার সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করা হয়। পুলিশ তদন্ত শেষে মঙ্গলবার গভীর রাতে এটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু করে। পরে বুধবার রাতে বিষয়টি সাংবাদিকদের অবহিত করা হয়।

এর আগে গত শুক্রবার ভোরে এমপি লিটনের ছোঁড়া গুলিতে সৌরভ মিয়া (৯) নামে এক শিশু আহত হয়। পরে শনিবার গুলিবিদ্ধ সৌরভের বাবা এমপি লিটনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা করেন। একই দিন সন্ধ্যায় এমপি লিটনের লাইসেন্স করা অস্ত্র দুটি সুন্দরগঞ্জ থানায় জমা দেন তার স্ত্রীর বড় ভাই তারিকুল ইসলাম। পরদিন রবিবার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তার অস্ত্র দুটির লাইন্সেস বাতিল করেন।  

মঙ্গলবার দায়ের হওয়া মামলাটি প্রসঙ্গে বাদি হাফিজার রহমান ও সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি ইসরাইল হোসেন জানান,তুচ্ছ ঘটনার জেরে গত রবিবার হাফিজার রহমানের বাড়িতে ভাঙচুর চালায় এমপি লিটন ও তার লোকজন। ঘটনার সময় এমপি লিটন নিজেই উপস্থিত থেকে সেখানে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়েন। এরপর তার লোকজন হাফিজার রহমানের বাড়িতে ভাংচুর চালায় ও ঘরের টিন ও মালামাল এমপির মালিকানাধীন হিমাগারে নিয়ে যায়। ঘটনার পর মোবাইল ফোনে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসককে বিষয়টি জানানো হয়। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরেজমিনে তদন্ত শেষে ওই দিন সন্ধ্যায় এমপির হিমাগার থেকে টিন ও বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করে হাফিজার রহমানকে ফেরত দেন।

স্থানীয়রা জানান, এমপি লিটনের আক্রোশের শিকার হয়ে হাফিজার রহমানের পরিবারটি এখন খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হাই মিল্টন জানান,তিনি এমপির লিটনের হিমাগার থেকে হাফিজার রহমানের বাড়ির টিন ও আসবাবপত্র উদ্ধারের সময় উপস্থিত ছিলেন। এর বেশি আর কিছু তিনি জানেন না।

মামলাটি দেরিতে রুজু করার কারণ জানতে চাইলে গাইবান্ধার পুলিশ সুপার আশরাফুল ইসলাম বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন,‘এখন একটা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পুলিশকে সতর্ক থাকতে হবে।’

/এসএম/    

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।