রাত ০৩:৫৪ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করে আমরা দেখাবো: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট ॥

আগে অনেক আন্তর্জাতিক সংস্থা বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি অর্জন নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করতেন। এখন তারা সে অবস্থান থেকে সরে এসেছে। তারা এখন বলছে বাংলাদেশে ৬ দশমিক ৫০ বা ৬ দশমিক ৭০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে। তবে আমি আশাবাদী, বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে ৭ শতাংশ। এটা আমরা করে দেখাবো। কারণ, আমরা মুক্তিযুদ্ধ করে স্বাধীনতা পেয়েছি। আমরা বীরের জাতি।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরস্থ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সম্মেলনকক্ষে মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,  “১৯৮১ সালে মতিয়া আপাকে নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়াতাম। তখন মানুষকে দেখতাম তাদের গায়ে পোষাক আছে কিনা। তখন মানুষের গায়ে একটু কাপড়, পায়ে স্যান্ডেল থাকতো না। এখন বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের কারণে গ্রামেও আয় বৈষম্য নেই। প্রতিটি গ্রাম একেকটি ছোট শহরে পরিণত হচ্ছে। অল্প দিনের মধ্যেই গ্রাম ডিজিটালাইজড হবে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “এমডিজি (সহস্রবাদ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা) নির্ধারণের সময় জনগণের নির্বাচিত সরকার হিসেবে আমি ছিলাম। এসডিজির (টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা) সময়েও আমি জনগণের নির্বাচিত সরকার প্রধান হিসেবে ক্ষমতায় আছি। এজন্য আমি দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ।”

তিনি বলেন, “আমাদের একটা কথা মনে রাখতে হবে, সরকারের ধারাবাহিকতা না থাকলে কাঙ্খিত ফল অর্জন করা সম্ভব নয়।”

পুরস্কারের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এ অর্জন আমার একার নয়। এ অর্জন আমাদের সবার। আপনাদের সহযোগিতায় ছাড়া এ অর্জন সম্ভব হতো না। এজন্যে সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। আর এই অর্জন আমি দেশবাসীকে উৎসর্গ করছি।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “বিশ্বের কেউ বাংলাদেশকে ছোট করে দেখলে আমাকে বিষয়টা অনেক কষ্ট দেয়। বাংলাদেশ নিয়ে নেতিবাচক কথা বললে আমি সহ্য করতে পারি না। ৫৪ হাজার বর্গমাইলের ১৬ কোটি মানুষের মুখে খাবার দিচ্ছি, এটা সহজ কথা নয়। গরীব মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আর এর জন্য সবার দোয়া চাই।”

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।