রাত ০৩:৫৪ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

ঈদের কারণে সার্বিক মূল্যস্ফীতি বেড়েছে

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সেপ্টেম্বর মাসে সার্বিক মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ২৪ শতাংশে। আগস্ট মাসে এ হার ছিল ৬ দশমিক ১৭ শতাংশ ।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে পরিকল্পমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মাসিক মূল্যস্ফীতির এ সর্বশেষ তথ্য জানান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, কোরবানির ঈদ থাকায় সেপ্টেম্বর মাসে ব্যবসা ও কেনাকাটা বাড়ায় মূল্যস্ফীতি কিছুটা বেড়েছে। তবে, তা ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ৬ দশমিক ৮৩ শতাংশের তুলনায় কম।

তিনি আরও বলেন, চলতি বছর আমাদের মূল্যস্ফীতির নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৬ দশমিক ৫ শতাংশ। আমরা এ লক্ষ্য অনুযায়ী আছি।

বিবিএসের সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, সেপ্টেম্বর মাসে খাদ্যপণ্যে সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৯২ শতাংশ।আগস্ট মাসে খাদ্যপণ্যে এ হার ছিল ৬ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ।

এদিকে খাদ্যবহির্ভূত পণ্যে সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক শূন্য ৭৩ শতাংশে। আগস্ট মাসে তা ছিল ৬ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

সেপ্টেম্বর মাসে শহর অঞ্চলে সার্বিক মূল্যস্ফীতির ছিল ৬ দশমিক ৯৬ শতাংশ। আর খাদ্যপণ্যে এ হার ছিল ৭ দশমিক ৪৭ শতাংশ এবং খাদ্যবহির্ভূত খাতে ৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ।

এ সময় সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ। আগস্টে তা ছিল ৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ।গ্রামে সেপ্টেম্বর মাসে খাদ্য পণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ২৬ শতাংশে।আগস্ট মাসে এ হার ছিল ৫ দশমিক ৪২ শতাংশ। অপরদিকে খাদ্যবহির্ভূত পণ্যে মূল্যস্ফীতি এ সময় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আগস্টে এ হার ছিল ৬ দশমিক ৪১ শতাংশ।

এ ছাড়া, বিবিএসের মজুরি সূচক পর্যালোচনা করে জানিয়েছে সেপ্টেম্বর মাসে সাধারণ মজুরি কমেছে। এতে দেখা যায়, সেপ্টেম্বর মাসে মজুরি সূচক কমে দাঁড়িয়েছে ৯ দশমিক ৬২ শতাংশে। অথচ আগস্ট মাসে এ সূচক ছিল ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।