রাত ০৫:৪৮ ; শনিবার ;  ১৯ অক্টোবর, ২০১৯  

এমপি লিটনের শাস্তির দাবিতে গাইবান্ধায় মানববন্ধন

প্রকাশিত:

গাইবান্ধা প্রতিনিধি॥

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ)আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মো.মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে জেলার সর্বস্তরের মানুষ। গতকাল রবিবার এমপি লিটনকে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে গাইবান্ধা শহর ও সুন্দরগঞ্জে পৃথকভাবে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সংগঠন।

স্থানীয় লোকজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়,লিটনের  বিরুদ্ধে কোথাও কোনও মিছিল মিটিং না করার জন্য প্রশাসনের লোকজন কর্তৃক নিষেধ করা হচ্ছে। লিটনের ক্যাডাররাও গোপনে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেন।

তারপরও গাইবান্ধা শহরের ডিবি রোডের ১নং ট্রাফিকমোড়ে মানববন্ধন করে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন ও ছাত্র ইউনিয়নের গাইবান্ধা জেলা সংসদ। অপরদিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সদরের বঙ্গবন্ধু চত্বরে মানববন্ধন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ ও উপজেলা নাগরিক সংগ্রাম পরিষদ।

বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত গাইবান্ধায় এ মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি প্রতিভা সরকার ববি,সাধারণ সম্পাদক অ্যাড.মুরাদ জামান রব্বানী,জেলা ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি শরিফুল ইসলাম শরিফ,সাধারণ সম্পাদক রানু সরকার,সাংগঠনিক সম্পাদক তপন দেবনাথ,সঞ্জয় মোহন্ত প্রমুখ। এছাড়া এই কর্মসূচির প্রতি সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, কৃষক সমিতি, বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতি, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের নেতারা।

অপরদিকে সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সুন্দরগঞ্জ বঙ্গবন্ধু চত্বরে মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন,সুন্দরগঞ্জ পৌর মেয়র ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল্লাহ্ আল মামুন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি টিআইএম মকবুল হোসেন প্রামাণিক,সাংগঠনিক সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এমদাদুল হক বাবলু,উপজেলা নাগরিক সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি বীরেন সরকার মিন্টু,সাধারণ সম্পাদক এটিএম মাসুদুল আলম চঞ্চল,উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবিব মাসুদ প্রমুখ।

এ ব্যাপারে সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি ইসরাইল হোসেন বলেন,সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা যথারীতি নিয়ম-কানুন মেনেই শনিবার রাতে গ্রহণ করা হয়েছে। তবে সংসদ সদস্য হওয়ায় এখন প্রয়োজনীয় নিয়ম রীতিনীতি মেনেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সংসদ সদস্য ও তার স্ত্রী সুন্দরগঞ্জে নেই।  এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাংসদ লিটনের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। ঘটনার দিন বিকাল থেকে তিনি উধাও বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা

ওসি আরও জানান,এমপি লিটনের বিরুদ্ধে কোন মিছিল মিটিংয়ের প্রয়োজন নাই। পুলিশ আইনগতভাবেই অগ্রসর হচ্ছে। তবে সভা-সমাবেশে কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি। এছাড়া এমপি সাহেবের লোকজন গোপনে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে এমন কোনও অভিযোগ তিনি পাননি বলে জানান।

/জেবি/এমআর/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।