ভোর ০৬:৫১ ; শনিবার ;  ১৯ অক্টোবর, ২০১৯  

শিশু গুলিবিদ্ধ: এমপি লিটনের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

গাইবান্ধা প্রতিনিধি॥

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মো.মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের ছোড়া গুলিতে শিশু গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় প্রতিবাদ এবং তার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।

শুক্রবার দুপুরে সুন্দরগঞ্জ পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা  মো. আব্দুল্লা আল মামুনের নেতৃত্বে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবস্থানকারীদের সরিয়ে দেয়।

সুন্দরগঞ্জ পৌর মেয়র ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল্লা আল মামুন অভিযোগ করেন, বিষয়টি পুলিশ ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) জিন্নাত আলী গুলিতে শিশু আহতের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কিভাবে বা কে গুলি করেছে তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেননি। তিনি জানান, সংসদ সদস্য মো. মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের গুলিতে শিশুটি আহত হয়েছে বলে তিনিও শুনেছেন। কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীরা কেউ ভয়ে পুলিশের কাছে মুখ খুলছেন না। এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগও করেনি। এজন্য শিশুটির পায়ে কার ছোড়া গুলি লেগেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আবদুল হাই মিলটন জানান, শিশুটিকে বহনকারী গাড়ি আটক করার কথা শুনে তিনি ঘটনাস্থলে যান। তবে কিভাবে শিশুর পায়ে গুলি লেগেছে এ বিষয়ে তিনি মুখ খুলতে রাজি হননি। 

সংসদ সদস্য মো. মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের মোবাইল ফোনে একাধিবার কল দিলেও তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়ায় যায়।

শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের  গোপালচরণ ব্র্যাক মোড়ে ওই আসনের সরকার দলীয় এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম ‘মদ্যপ অবস্থায়’ শাহাদত হোসেন সৌরভের (৮) পায়ে পরপর তিনটি গুলি করেন। সৌরভের বাম পায়ের হাঁটুর নিচে একটি এবং ডান পায়ের হাঁটুর নিচে দুটি গুলি লাগে।

সৌরভ উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের গোপালচরণ গ্রামের সাজু মিয়ার ছেলে ও গোপালচরণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। শুক্রবার তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

/এএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।