সকাল ০৯:৩৮ ; রবিবার ;  ১৮ নভেম্বর, ২০১৮  

পোশাক কিনতে যাচ্ছেন?

প্রকাশিত:

লাইফস্টাইল ডেস্ক।।

হয়তো পোশাক কেনার সময় অনেক বেশি চিন্তা ভাবনা করা হয়ে ওঠে না। তবে এজন্য মাঝে মধ্যেই পড়তে হতে পারে বিড়ম্বনায়। পোশাক আশাক কেনার সময় খেয়াল রাখা প্রয়োজন কিছু বিষয়। জানাচ্ছেন ফ্যাশন ডিজাইনার সারাহ্ দীনা

 

  • পোশাক কেনার পরিকল্পনায় প্রথমেই আসে বাজেটের কথা। নির্ধারিত বাজেট থেকে উনিশ-বিশ এদিক ওদিক হলেও বাজেট যদি অতিক্রম করতে না চান তবে হুটহাট করে না কিনে ঘুরে দেখতে হবে বেশ কয়েকটি দোকান। তাতে বাজেটের মধ্যেই খুঁজে পাওয়া যাবে পছন্দের পোশাক।
     
  • কেনাকাটার তালিকা করে নিলে সময় অনেকটাই সাশ্রয় হয়। আগামীকাল যেগুলো কিনবেন তার একটা তালিকা করে নিন আজ রাতেই। এতে সময় এবং শ্রম দুটোই বাঁচবে।
     
  • কিছু পোশাক হয় মাল্টি টাস্কিং ধরনের। এগুলো যেমন ব্যবহার করা যায় উৎসবে, আবার অনায়াসেই পরা যায় দৈনন্দিন কাজের জায়গায়। এ ধরনের পোশাক কিনে মেটাতে পারেন একই সাথে দুটি চাহিদা।
     
  • সময় এবং সুযোগ থাকলে উৎসবের কেনাকাটা একটু আগে করে নেওয়াই ভালো। এখনকার সময়ে উৎসবের কালেকশন ডিজাইনাররা নিয়ে আসেন বেশ আগেই। তাই দেরি না করে একটু আগে কেনাকাটা করলে ভিড় ঠেলে পৌঁছাতে হয় না শপিং মলে। করতে হয় না তাড়াহুড়াও। বরং একটু সময় নিয়েই দেখেশুনে কেনা যায় উৎসবের পোশাক।
     
  • একা একা শপিং না করে একজন সঙ্গী নিয়ে নিতে পারেন। এতে পছন্দ অপছন্দের ব্যাপারে দ্বিধান্বিত হয়ে পড়লে সাহায্য নিতে পারবেন।
     
  • একই দোকান থেকে বারবার কেনাকাটা করলে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে বেশ ভালো সমঝোতা তৈরি হয়। এতে অনেক সময় ক্রেতা বেশকিছু সুবিধা পেয়ে থাকেন। যেমন পণ্য সম্পর্কে সঠিক তথ্য, দামের ক্ষেত্রে কিছু কম ইত্যাদি।
     
  • উৎসব বা গুরুত্বপূর্ণ কোনও উপলক্ষে পোশাক কিনতে চাইলে নতুন দোকান বা প্যাটার্ন ট্রাই না করাই ভালো।
     
  • পোশাকের যত্নের ব্যাপারও জেনে রাখা জরুরি।
     
  • রেডিমেইড পোশাক ক্রয়ের ক্ষেত্রে ট্রায়াল দেওয়ার সুবিধা আছে এমন দোকান বেছে নেয়া উচিত।
     
  • পোশাক কেনার সময় হাল ফ্যাশনের চাইতে নিজের স্বস্তি ও প্রয়োজনকে গুরুত্ব দিন।

 

/এনএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।