দুপুর ০৩:১৩ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৭ অক্টোবর, ২০১৯  

ভ্যাটবিরোধী আন্দোলনে ছাত্রজোটের সমর্থন

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত সাড়ে সাত শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন-কর্মসূচির প্রতি সমর্থন জানিয়েছে  প্রগতিশীল ছাত্র জোট। একই দাবিতে সমর্থন ব্যক্ত করে সংবাদ সম্মেলনে করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন। তবে জোটের সংবাদ সম্মেলনে শরিক সংগঠন ছাত্র ইউনিয়ন উপস্থিত ছিল না। রবিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রজোট  এই সমর্থন জানায়। 

প্রগতিশীল ছাত্র জোট আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র  ফ্রন্টের সভাপতি ও প্রগতিশীর ছাত্র জোটের সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নান্টু। তিনি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনে একে অলাভজনক  ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখিয়ে আর্থসামাজিক মানদণ্ডে টিউশন ফি নির্ধারণ করতে বলা হয়েছে। কিন্তু দেশের বিশাল অংশ শ্রমজীবী মানুষের আয়ের সঙ্গে বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর টিউশন ফি সঙ্গতিপূর্ণ নয়। সুনির্দিষ্ট কোনও নীতিমালা না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের নিজেদের মতো করে লাখ-লাখ টাকা টিউশন ফি নির্ধারণ করে মুনাফা অর্জন করছে।

জনার্দন দত্ত নান্টু বলেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে অপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন খাত দেখিয়ে অর্থ তুলে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় কিংবা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এ সকল বিষয়ে নির্বিকার। এমন পরিস্থিতিতে কোনও প্রকার নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে ৭.৫% ভ্যাট আরোপ করার সরকারি নীতি টিউশন ফি’কে আরেক দফা বাড়িয়ে দেওয়ার নীলনকশা ছাড়া আর কিছুই নয়।
এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের আহূত চলমান তিনদিনের ছাত্র ধর্মঘট সর্বাত্মকভাবে সফল করার জন্য ছাত্রসমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি সৈকত মল্লিক, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি সালমান রহমান, ছাত্র ঐক্য ফোরামের যুগ্মআহ্বায়ক সরকার আল ইমরান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সদস্য নাঈমা খালেদ মনিকা, প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে অনুপস্থিত ছিল ছাত্র ইউনিয়ন। সংগঠনের তিনব্যাপী জাতীয় সম্মেলন থাকায় উপস্থিত থাকতে পারেনি বলে জোটের এক নেতা বাংলা ট্রিবিউনকে জানান। জানতে চাইলে ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি হাসান তারেক বলেন, আমাদের জাতীয় সম্মেলন থাকায় জোটের সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। তিনি জানান, ছাত্র ইউনিয়নের সম্মেলনে আলোচিত বক্তব্যের মধ্যে মূল আলোচ্য বিষয় ছিল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভ্যাট প্রত্যাহার।

লাগাতার অবরোধ চলবে: ছাত্র ফেডারেশন

এর আগে একই দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ফেডারেশনের সভাপতি সৈকত মল্লিক। সৈকত মল্লিক বলেন, আমরা স্পষ্ট বলে দিতে চাই, শিক্ষাকে রাষ্ট্র ব্যবসার পণ্যে রূপান্তরিত করতে চায়। কিন্তু বিদ্বৎসমাজ ও সচেতন মহল বরাবরই এর বিরোধিতা করে আসছে। কারণ শিক্ষা কোনও পণ্য নয়। শিক্ষা হল অধিকার। সুতরাং শিক্ষায় ভ্যাট শিক্ষার প্রকৃতদর্শন ও মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গীকারের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তিনি বলেন, প্রতিটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভ্যাট প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের ব্যানারে লাগাতার অবস্থান ধর্মঘট চলবে। পাশাপাশি শিক্ষক সমাজের মর্যাদা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলনের সঙ্গে পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছে ছাত্র ফেডারেশন।

সংবাদ সম্মেলনে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম সোহেল, ফেডারেশনের ঢাবি সভাপতি মনোয়ার হোসেন মাসুদ ও সাধারণ সম্পাদক সাদিক রেজাসহ  অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

/এসটিএস/এমএনএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।