দুপুর ০৩:৪৯ ; শুক্রবার ;  ২২ নভেম্বর, ২০১৯  

নগরে পানি সেবাসহ ৭ প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

ঢাকা ও চট্টগ্রামবাসীদের পানির চাহিদা পূরণ সংশ্লিষ্ট দুইটি প্রকল্পসহ মোট সাতটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে মঙ্গলবার  জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন একনেক  চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বৈঠক শেষে জানিয়েছেন, প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ হাজার ২১৫ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকার ৩ হাজার ১১৭ কোটি ৭৬ লাখ, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ১০৪ কোটি এবং প্রকল্প সাহায্য বাবদ দাতারা ৩ হাজার ৯৯৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকার যোগান দেবে।

মুস্তফা কামাল বলেন, “২০৩০ সাল নাগাদ ঢাকা শহরে ভূউপরিস্থ পানির ব্যবহার ৭০ ভাগে উন্নীত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে সরকার। এ লক্ষ্যে ৪ হাজার ৫৯৭ কোটি ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার প্রকল্প (ফেজ-৩) অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।”

তিনি জানান, শোধনাগারটির বাস্তবায়নকাল জুলাই, ২০১৫ থেকে জুন, ২০২০। এর নির্মাণ ব্যয়ের মধ্যে সরকার ১ হাজার ৫১৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ৩০ কোটি টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য বাবদ দাতারা ৩ হাজার ৫৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকার যোগান দেবে।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, “ঢাকার পাশাপাশি চট্টগ্রামবাসীর পানির সমস্যা সমাধানে ১ হাজার ৮৪৮ কোটি ৫৩ লাখ টাকা ব্যয়ে কর্ণফুলি পানি সরবরাহ (২য় সংশোধনী) প্রকল্প অনুমোদ দেওয়া হয়েছে।”

অন্যান্য প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে ১৬৪ কোটি টাকা ব্যয়ে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের গোড়াইতে বিসিক শিল্প পার্ক স্থাপন। ৫০ একর জমিতে ২৮০টি শিল্প প্লট স্থাপিত হবে। এর মধ্যে ন্যূনতম ১০ ভাগ সংরক্ষিত থাকবে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ।

বাংলাদেশ ইক্ষু গবেষণা’র সমন্বিত গবেষণা কার্যক্রম জোরদারকরণ প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা।

যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৩০১ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলাধীন কুর্ণিবাড়ি হতে চন্দনবাইশ পর্যন্ত এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলায় মেঘনা সেতু সুরক্ষা এবং মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলায় গোমতী সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪১ কোটি ৫ লাখ টাকা।

এ ছাড়া, অনুমোদন দেওয়া হয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকার রাস্তাসমূহ এনফল্ট প্লান্টের মাধ্যমে উন্নয়ন প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকা।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।