রাত ০২:০৪ ; রবিবার ;  ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০  

সৃজনশীলতায় কমওয়ার্ড

প্রকাশিত:

নাজিয়া লোপা।।

সম্প্রতি দেশের সেরা ৬৩টি বিজ্ঞাপনী প্রচার ৫ম কমওয়ার্ড পুরস্কার পেয়েছে। এসব বিজ্ঞাপন প্রচারিত হয় ২০১৪ সালে। বিপণন ও ব্যবসায়ের জগতে সৃজনশীল যোগাযোগ তথা বিজ্ঞাপনী প্রচারে উৎকর্ষ সাধনের স্বীকৃতিস্বরুপ এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক জমকালো অনুষ্ঠানে দেওয়া হয় পুরস্কারটি। ২০ ক্যাটেগরি বা শ্রেণিতে এই পুরস্কার দেওয়া হয়। বিজয়ী বিজ্ঞাপনগুলো পায় গ্র্যান্ড প্রিক্স, স্বর্ণ ও রৌপ্য পদক।

পুরস্কার নিচ্ছে অ্যাডকম লিমিটেড

কয়েক মাস ধরে বিজ্ঞাপনের মনোনয়ন গ্রহণ ও বাছাইয়ের প্রক্রিয়া শেষে সৃজনশীলতায় সেরা দেশের বিজ্ঞাপনগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়। দেশের প্রথিতযশা বিপণন ও যোগাযোগ বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত জুরি প্যানেল বিচার-বিবেচনার মাধ্যমে সেরা বিজ্ঞাপনগুলো বাছাই করে।

এ বছরে কমওয়ার্ডে পুরস্কারের জন্য ৩৬টি বিজ্ঞাপনী সংস্থা এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ক্রিয়েটিভ ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে মোট ৩৬৭টি মনোনয়ন জমা পড়েছে। এটিই কমওয়ার্ডের জন্য এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ সংখ্যক মনোনয়ন! অনেক নতুন বিজ্ঞাপনী সংস্থা তাদের অসাধারণ ও সৃজনশীল বিজ্ঞাপনের জন্য পুরস্কার পেয়েছে। আবার প্রতিষ্ঠিত ও বৃহৎ প্রতিষ্ঠানগুলোও তাদের জোরালো বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত কার্যক্রমের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেছে। বিজ্ঞাপনী প্রচারগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় বলে বিবেচিত হয়েছে, আইসিসি চার ছক্কা হৈ হৈ। এটি জিঙ্গল, সোশ্যাল মিডিয়া ও ইন্টেগ্রেটেড ডিজিটাল মিডিয়া ক্যাটেগরিতে সর্বোচ্চ সংখ্যক গ্র্যান্ড প্রিক্স পুরস্কার পেয়েছে। নারীদের জন্য ডেব্যু ক্যাটেগরির বিজ্ঞাপনী প্রচার বা ক্যাম্পেইনে ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি ফাউন্ডেশন, রাইজ আপ ফর উইমেন এবং মেরিল’স স্প্ল্যাশ ফ্রেশ ইজ বিউটিফুল বিজয়ী হয়েছে। আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি২০ বিশ্বকাপ বাংলাদেশ ২০১৪ নিয়ে যে বিজ্ঞাপনটি তৈরি হয় সেটি ইন্টেগ্রেটেড বা আলটিমেট কমপ্রিহেন্সিভ ক্যাটেগরিতে গ্র্যান্ড প্রিক্স পুরস্কার জিতে নেয়।

পুরস্কারপ্রাপ্তদের একাংশ

বাংলাদেশের ব্যবসা জগতে সৃজনশীল বিজ্ঞাপন ও বিপণনে উৎকর্ষ সাধনের স্বীকৃতি প্রদান এবং এ ব্যাপারে উৎসাহ দেওয়ার ক্ষেত্রে বৃহত্তম উদ্যোগ হলো কমওয়ার্ড, যা শুরু হয় ২০০৯ সালে। কমওয়ার্ড প্রদান উপলক্ষে কান লায়ন্সের সহযোগিতায় সৃজনশীল যোগাযোগের ওপর দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার আয়োজনে করা হয়। দিনব্যাপী যোগাযোগ সম্মেলন, কান শোকেসিং, প্যানেল আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণের মধ্যদিয়ে শেষ হয় দিনব্যাপী এই আয়োজিত কমওয়ার্ড উৎসব।

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের (বিবিএফ)  উদ্যোগে আয়োজিত এ বছরের কমওয়ার্ড-এ সহযোগী হয়েছে কান লায়ন্স ও দ্য ডেইলি স্টার। এছাড়া অংশীদার ও পৃষ্ঠপোষক হিসেবে কাজ করেছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যেমন ইভেন্ট পার্টনার রাকীন ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি ও আরএফএল,  নলেজ পার্টনার এমএসবি, টিভি পার্টনার ইনডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন, সোশ্যাল মিডিয়া পার্টনার ওয়েবেবল, পিআর পার্টনার মাস্টহেড পিআর, আইটি পার্টনার আমরা, ডিজিটাল কনেটেন্ট পার্টনার ম্যাভেরিক এবং স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার রোয়ারিং লায়ন্স।

 

আরএফ  

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।