সকাল ০৯:২৬ ; মঙ্গলবার ;  ২৩ জুলাই, ২০১৯  

‘গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল না হলে আন্দোলন’

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়েছে খেলাফত মজলিস ও  ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। এই মুহূর্তে দেশে  গ্যাসের ও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি সম্পূর্ণ অন্যায় ও অযৌক্তি বলে মনে করছে এই দুটি দল। দেশের সাধারণ মানুষের কথা চিন্তায় করে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে আন্দোলন গড়ে তোলারও হুশিয়ারি দিয়েছে দল দুটি। বৃহস্পতিবার পৃথক বিবৃতিতে খেলাফত মজলিস ও  ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য কমানোর দাবি জানায়। এছাড়া জামায়াতে ইসলামীও  পৃথক আরেক বিবৃতিতে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে  বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) বিদ্যুতের দাম গড়ে ২.৯৩ শতাংশ হারে আর গ্যাসের দাম ২৬.২৯ শতাংশ হারে বাড়িয়েছে। এতে গ্যাস ব্যবহারে এক চুলার কানেকশনে ৬০০ টাকা, আর দুই চুলার কানেকশন ৬৫০ টাকা হবে। যে মূল্য এর আগে ছিল যথাক্রমে ৪০০ টাকা ও ৪৫০ টাকা।
বিদ্যুতের ক্ষেত্রে ১ থেকে ৫০ ইউনিট পর্যন্ত ইউনিট প্রতি আগের দর অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে ৫০ থেকে ৭৯ ইউনিট খরচে ইউনিট প্রতি ২৭ পয়সা বেড়ে ৩.৫৩ টাকা থেকে ৩.৮০ টাকা করা হয়েছে। আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে ভোক্তা পর্যায়ে এই নতুন মূল্য কার্যকর হবে।

বৃহস্পতিবার রাতে এক বিবৃতিতে খেলাফত মজলিসের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের এক যুক্ত বিবৃতিতে  নেতা  গ্যাস ও বিদ্যুতের  মূল্য কমানোর দাবি জানান। বিবৃতিতে এই দুই নেতা বলেন,  অযৌক্তিভাবে এই মুহূর্তে দেশে জ্বালানি গ্যাসের দাম ২৬.২৯ শতাংশ ও বিদ্যুতের দাম ২.৯৩ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে এমনিতেই জনগণের নাভিশ্বাস উঠেছে। আর বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বর্তমানে রেকর্ড পরিমাণ কমে গেছে। এ অবস্থায় সাধারণ জনগণের কথা চিন্তা করে তেল, গ্যাস, বিদ্যুতের মূল্য কমানো প্রয়োজন। কিন্তু উল্টো বাংলাদেশে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি জনগণের ওপর জুলুমের শামিল।  ও বিদ্যুতের  মূল্য কমানো না হলে সাধারণ মানুষ জনবিচ্ছিন্ন সরকারের এ অর্থনৈতিক শোষণ ও জুলুমের বিরুদ্ধে গর্জে উঠবে।

পৃথক বিবৃতিতে জ্বালানি গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্তের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। দলটির আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম  বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর এ পর্যন্ত ৭বার বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করেছে। এতে করে সাধারণ মানুষ বিরাট চাপের সম্মুখীন হয়েছে। এই মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল করতেই হবে। অন্যদিকে জ্বালানি গ্যাসের মূল্য ২৬.৯৩ শতাংশ একসঙ্গে বৃদ্ধির কারণে সাধারণ মানুষকে কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হবে। এরমধ্যে বিদ্যুৎ ও  গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিতে জনজীবন চরম বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে। এ সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

/সিএ/এমএনএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।