রাত ১১:০২ ; শুক্রবার ;  ১৮ অক্টোবর, ২০১৯  

তিস্তার পানি আবারও বিপদসীমার ওপরে

প্রকাশিত:

নীলফামারী প্রতিনিধি॥

উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি আবারও বিপদ সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টা থেকে নীলফামারীর ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ১৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তিস্তা বাঁধের ৪৪টি স্লুইস গেট খুলে রেখেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এলাকাবাসী জানায়, উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তায় যে পানি আসছে তা প্রচণ্ড ঘোলা ও নোংড়া। ওই এলাকায় বৃষ্টিপাত না থাকলেও উজানের ভারি বৃষ্টিপাত এবং পাহাড়ি ঢলে তিস্তার তীরবর্তী এলাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই, খগাখড়িবাড়ি, টেপাখড়িবাড়ি, খালিশা চাঁপানী, ঝুনাগাছ চাঁপানী, গয়াবাড়ি ও জলঢাকা উপজেলার, গোলমুণ্ডা, ডাউয়াবাড়ি, শৌলমারী ও কৈমারী ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকার ২৫টি চর ও গ্রামের ১০ হাজার পরিবার বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে।

পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বলেন, তিস্তাবেষ্টিত গ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

খালিশা চাঁপানী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামছুল হুদা জানান, পূর্ববাইশপুকুর গ্রামটি তিস্তা বাঁধের ভাটিতে হওয়ায় সেখানকার ঘরবাড়িগুলোর ভেতর দিয়ে পানির স্রোত বয়ে যাচ্ছে। এছাড়া ছোটখাতা ও বানপাড়া দুইটি গ্রাম বানের পানিতে তলিতে রয়েছে।

ডালিয়া ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তফিজুর রহমান ও ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানায়, তিস্তার পানি বিপদসীমার ১৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

/এমডিপি/এসটি/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।