রাত ০৯:১৩ ; বৃহস্পতিবার ;  ২০ জুন, ২০১৯  

সাকা’র ফাঁসি বহাল রাখায় রিয়াদে কেক কেটে সন্তুষ্টিসভা

‘সময় এসেছে জামাতকে নিষিদ্ধ করার’

প্রকাশিত:

অহিদুল ইসলাম, সৌদি আরব থেকে ॥

মানবতাবিরোধী অপরাধে সাকা চৌধুরীর ফাঁসির রায় বহাল রাখায় সৌদি আরবের রিয়াদে আওয়ামী পরিবারভুক্ত ৪টি সংগঠন কেকে কেটে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। সম্প্রতি রিয়াদের গওরমেট রেস্তোঁরায় এই সন্তুষ্টিসভার আয়োজন করে রিয়াদের আওয়ামী পরিষদ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, যুবলীগ ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ। এতে সহযোগিতা করে রিয়াদ শ্রমিক লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা ও কর্মীরা।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সাকা চৌধুরীর বীভৎস অপকর্মের কথা তুলে ধরে রায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি’র সমালোচনার তীব্র প্রতিবাদ করেন বক্তারা। তারা বলেন, র্দীঘদিন ধরে সূক্ষ্ম পর্যালোচনার প্রেক্ষিতে এই রায়ের বিরুদ্ধে কথা বলা প্রকৃত অর্থে আদালত অবমাননার সামিল।

এতে সভাপতিত্ব করেন শফিকুল আলম ফিরোজ। প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গাজী সাঈদ। বক্তব্য রাখেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইউসুফ খান, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কৃষিবিদ শামীম আবেদিন, আওয়ামী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এমআর মাহবুবসহ আরও অনেকে। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আওয়ামী ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম। উপস্থিত ছিলেন সৌদি আরব যুবলীগের সভাপতি আব্দুল জলিলসহ শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রবাসী নেতাকর্মীরা।

সাকা চৌধুরীর দাম্ভিক আচরণের কথা তুলে ধরে এম আর মাহবুব বলেন,’৭১-এ মানবতাবিরোধী অপরাধ করে ক্ষমতায় বসে প্রকাশ্যে নিজেকে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী স্বীকার করার পরও বিএনপি নেতাদের এই রায়ের প্রতিক্রিয়ায় সাকা মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ছিলেন না বলাটা মিথ্যার বেসাতি ছাড়া আর কিছুই না। আসলে বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচার এখন জনগণের কাছে নির্মম সত্য হিসেবে দিনে দিনে পরিষ্কার হচ্ছে।’

বিএনপি’র কাঁধে ভর করে যুদ্ধাপরাধী জামাত-শিবিরের র্দীঘদিনের অপকর্মের কথা তুলে ধরেন কৃষিবিদ শামীম আহমেদ। তিনি বলেন,‘যুদ্ধাপরাধী জামাতের নেতারা দাড়ি-টুপি, আলখেল্লা পরে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিয়েছে। বিএনপি তাদের আশ্রয় দিয়ে অপরাধ মোচনের নানা রকম ব্যর্থ কৌশল অবলম্বন করেছে। মানবতাবিরোধী অপরাধের বিরুদ্ধে জননেত্রী শেখ হাসিনার জিরো টলারেন্ট থাকার কারণেই জাতি আজ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারছে।’ তিনি আরও বলেন,‘এখন সময় এসেছে জামাতকে নিষিদ্ধ করার।’

অনুষ্ঠানের সভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজ সৌদি আরবে আওয়ামী পরিবারের সকল নেতাকর্মীদের মিলেমিশে কাজ করে শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ ৩৪ বছর অবস্থান করে সৌদি আরবে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অমিল দেখার অভিজ্ঞতা আমার রয়েছে। এখন সময় এসেছে এসব দ্বিধাদন্দ্ব দূর করে জামাত-শিবিরের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো।'

/টিএন/

 

 

 

 

 

 

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।