ভোর ০৬:৫৪ ; শনিবার ;  ১৯ অক্টোবর, ২০১৯  

চট্টগ্রামে বাংলাদেশ এ্যাপারেল অ্যান্ড সেফটি এক্সপো শুরু বৃহস্পতিবার

প্রকাশিত:

বাংলা ট্র্রিবিউন রিপোর্ট।।

আগামি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে শুরু হচ্ছে ৩ দিনব্যাপী বাংলাদেশ এ্যাপারেল অ্যান্ড সেফটি এক্সপো। ৫০ বিলিয়ন ডলারের পোশাক রফতানির লক্ষ্য নিয়ে এবারের এক্সপো অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

পোশাক রফতানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির সভাপতি আতিকুল ইসলাম এ কথা জানান। তিনি জানান, চট্টগ্রামের হোটেল র‌্যাডিসন ব্লু-তে এ মেলার উদ্বোধন করবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ।

এবারের এক্সপোতে মোট ৭৩টি স্টল থাকবে। স্টলগুলো হোটেলটির মেজবান হলরুমে বরাদ্দ দেওয়া হবে। প্রদর্শনীতে তৈরি পোশাকের ১৭টি স্টল, ফেব্রিক্স ১টি, গার্মেণ্ট এক্সেসরিজ ২টি, গার্মেন্ট ফেব্রিক্স (স্থানীয়) ১টি, মেশিনারি ১৮টি, ফায়ার ইকুয়েপমেন্টস ২৫টি, সার্ভিস প্রোভাইডার্স এবং বিজিএমইএ’র ২টি স্টল থাকবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের দক্ষিণ এশিয় ট্রেড মনিটরিং গ্রুপের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ করিম, বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট, বাংলাদেশে ইউরোপীয় ইউনিয়নের হেড অব ডেলিগেট পেরি মায়েদুন ও কানাডার হাইকমিশনার পেরি লারমি উপস্থিত থাকবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে আতিকুল ইসলাম বলেন, “বিদ্যুৎ, গ্যাস ও জ্বালানি দেওয়া হলে বিজিএমইএ রফতানির যে লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেছে তা অর্জন করা সম্ভব। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) রফতানি যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে তাতে বিজিএমইএ’র লক্ষ্যমাত্রা প্রতিফলিত হয়নি।

২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলারের পোশাক রফতানির যে লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করা হয়েছিল সেটাকে সামনে রেখে চট্টগ্রামে এই মেলায় রোডম্যাপ তুলে ধরা হবে বলেও জানান তিনি।

আতিক বলেন, “এ মেলার মাধ্যমে উদ্যোক্তারা কারখানার নিরাপত্তা বিষয়ে আরও বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। কারণ প্রদর্শনীতে বিশ্বের খ্যাতনামা ব্র্যান্ডগুলো ছাড়াও বিশেষজ্ঞ, বিনিয়োগকারী, নীতিনির্ধারক ও সাংবাদিকরা অংশগ্রহণ করবেন।”

/এসআই/এফএইচ/

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।