বিকাল ০৪:৩৭ ; মঙ্গলবার ;  ২১ মে, ২০১৯  

‘খেলাফত আন্দোলনের নামে মিথ্যাচার চলছে’

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নামে মিথ্যাচার ও অবৈধ তৎপরতা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের আমিরে শরিয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ। মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহ হাফেজ্জি হুজুরের নাতি এবং দলের সাবেক আমির আহমদ উল্লাহ আশরাফের ছেলে মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজি এই তৎপরতা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। যদিও মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হচ্ছেন হাবিবুল্লাহ মিয়াজির চাচা এবং হাফেজ্জি হুজুরের ছোট ছেলে। সোমবার দলটির লালবাগ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ এ অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে তার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন দলটির মহাসচিব জাফরুল্লাহ খান।

লিখিত বক্তব্যে জাফরুল্লাহ খান বলেন, মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজি পত্রিকায় ভুয়া বিবৃতি দিয়ে অনধিকার চর্চা ও অবৈধ তৎপরতা চালাচ্ছেন। এসব কর্মকাণ্ড সংগঠনের গঠনতন্ত্রসহ সকল নীতি বিরোধী। সংগঠনের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অপচেষ্টার কারণে গঠনতন্ত্রের ৩৭ (ঘ) ধারা মোতাবেক মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজীকে দলের সাধারণ সদস্য পদ থেকে পদচ্যুত করা হয়েছে।

দলের কেন্দ্রীয় দফতর বা কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তমূলক বক্তব্য, বিবৃতি ছাড়া অন্য কারও বিবৃতিতে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান জাফরুল্লাহ খান।

জাফরুল্লাহ খান বলেন, দলের সাবেক আমিরে শরিয়ত আহমদ উল্লাহ আশরাফ খুবই অসুস্থ। তার এই অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে মাওলানা হাবিবুল্লাহ স্বেচ্ছাচারি ও জালিয়াতিমূলক বিভ্রান্তিকর অপতৎপরতা চালাচ্ছেন। গত বছর ২৯ নভেম্বর খেলাফত আন্দোলনের দ্বিবার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে হাফেজ্জি হুজুরের ছোট ছেলে আতাউল্লাহ আমির ও জাফরুল্লাহ খান মহাসচিব নির্বাচিত হন। ২০১৫-১৬ সালের জন্য বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মজলিশে শুরা (কেন্দ্রীয় কাউন্সিল) সর্বসম্মতিক্রমে নির্বাচিত হন। সেখানে দলের সাবেক  আমির আহমদ উল্লাহ আশরাফ এবং তার  ছেলে মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজি উভয়ে উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে আমীরে শরিয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ বলেন, আমার বড় ভাই দলের সাবেক আমির মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ অসুস্থ। তিনি সুস্থ হলেও দলের দায়িত্বে আসতে পারছেন না।  দলের কাউন্সিল ছাড়া আমি নিজেও তাকে  দলের দায়িত্ব দিতে পারছি না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, দলের নায়েবে আমির শাইখুল হাদিস আল্লামা ছোলাইমান নোমানী, মাওলানা সাজেদুর রহমান ফয়েজি, মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ আশরাফ, মাওলানা ফখরুল ইসলাম,মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মো. আজম খান, মাওলানা আব্দুল কাসেম কাসেমী, মাওলানা আব্দুল মান্নান, মাওলানা সাইফুল ইসলাম ও মো. শাহজাহান প্রমূখ।

 

/সিএ/এফএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।