দুপুর ০২:১৫ ; বৃহস্পতিবার ;  ২৭ জুন, ২০১৯  

কলকাতার ঈদ বাজারে সুপারহিট বাংলাদেশি লুঙ্গি

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

কলকাতা প্রতিনিধি।।
আর মাত্র এক দিন। তারপরই খুশির ঈদ। শেষ মুহূর্তে কলকাতায় জমজমাট ঈদের বাজার। আজ  শুক্রবার সকাল থেকে বৃষ্টি উপেক্ষা করে মহানগরীর বিভিন্ন বাজারে জামা-কাপড়, সেমাই-লাচ্ছা, টুপি-আতর কেনার হিড়িক লেগেছে। শ্রাবণের বৃষ্টি মাথায় করে কলকাতার প্রাণকেন্দ্র ধর্মতলা-নিউমার্কেট চত্বরে ভিড় ঠেলে এখন হাঁটাই দায়।
বেলগাছিয়া, রাজাবাজার, পার্ক সার্কাস, রিপন স্ট্রিট, হাজি মুহম্মদ মহসীন স্কয়ার, আনোয়ার শা রোড, গড়িয়া থেকে শুরু করে খিদিরপুর, মেটিয়াবুরুজ সর্বত্র এদিন ছিল ভিড়ে ঠাসা। গত দুই বছরের মতো কলকাতার ঈদের বাজারে এবার সুপার হিট বাংলাদেশি লুঙ্গি। ঢাকা, চট্টগ্রাম থেকে বেনাপোল বন্দর হয়ে আইনি-বেআইনি পথে আসা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের লুঙ্গি এবার ভারতীয় ব্র্যান্ডের নবাব, ইসমাইল, শাহাজাদা, চাঁদা মার্কা সরিয়ে বাজার দখল করে নিয়েছে এমনটাই জানাচ্ছেন বিক্রেতারা।


কলকাতার ধর্মতলার জানবাজারের সাদা বা ঘিয়া রঙের রঙিন সুতোর কাজের লুঙ্গি পাইকারি এবং খুচরা ক্রেতাদের এবারের ঈদে মন জয় করে নিয়েছে। বাংলাদেশের বিখ্যাত ব্র্যান্ড বাবা ও টেক্সটাইলের লুঙ্গি পাওয়া যাচ্ছে নিউমার্কেট এলাকার বিভিন্ন দোকানে।
নিউমার্কেটের মাদ্রাজ লুঙ্গি স্টোর্সের মালিক মুহম্মদ আসিফ বললেন, ২০১৩ সালে প্রথম বিক্রির জন্য এনেছিলাম বাংলাদেশি লুঙ্গি। তারপর ব্যাপক চাহিদা ছিল ক্রেতাদের মধ্যে। তাই এবারও এনেছি। লুঙ্গি ভালোই বিক্রি হচ্ছে।  গতবারের চেয়ে দাম একটু বেড়েছে, তবে দাম রয়েছে সাড়ে তিন শ’ থেকে সাড়ে ছয় শ’ রুপির মধ্যে। সারাবছর পাওয়া গেলেও ঈদের আগে এই মানের লুঙ্গি একটু বেশি বিক্রি হয়।
দোকানের দুজন কর্মচারী খুরশিদ আলম ও মহম্মদ জমিন জানান, খুব বেশি পরিমাণে এই লুঙ্গি বিক্রি হচ্ছে। ক্রেতারা আসছেন, কিনছেনও একাধিক সংখ্যায়, কিনে আনন্দও পাচ্ছেন তারা।
জানবাজারের শেখ ট্রের্ডাসের মালিক রমজান আলী বলেন, আসলে আমাদের পশ্চিমবঙ্গের বা ভারতের অন্য রাজ্যের লুঙ্গির তুলনায় এই লুঙ্গিগুলি অনেক টেকসই,চলেও অনেক দিন। তাই ক্রেতাদের অনেকেরই পছন্দ বাংলাদেশের এই বাহারি লুঙ্গি। ভালোই বিক্রি হচ্ছে। ইতিমধ্যেই আমার ৩ হাজার পিস লুঙ্গি বিক্রি হয়ছে।
ঈদের আগের দিনে এছাড়াও বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন ফল, বিরিয়ানির চাল, মসলা। রঙ-বেরঙের টুপি, জায়নামাজ আর আতর কিনতে ভিড় করছেন উৎসাহীরা।

/এসএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।