রাত ০৫:২৮ ; শনিবার ;  ১৯ অক্টোবর, ২০১৯  

রফতানি আয় বেড়েছে, অর্জিত হয়নি লক্ষ্য

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

২০১৪-১৫ অর্থ বছরে রফতানি আয় বেড়েছে ১০১ কোটি ১৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা। এ অায় আগের অর্থ বছরের তুলনায় ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি। তবে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা সম্ভব হয়নি।

মঙ্গলবার রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) চলতি বছরের জুন পর্যন্ত প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

ইপিবি সূত্র জানায়, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে গত অর্থ বছরের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়নি। এ ছাড়া আমেরিকাসহ সব দেশের ক্রেতারা পণ্যের দাম কমিয়ে দিয়েছে। আর ইউরো ও রুবলের দরপতনের কারণেও রফতানি আয় কম হয়েছে।

ইপিবির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সদ্য সমাপ্ত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩ হাজার ৩২০ কোটি টাকা। এর বিপরীতে আয় হয়েছে ৩ হাজার ১১৯ কোটি ৮৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৬ দশমিক ০৩ শতাংশ কম। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের আয় ছিল ৩ হাজার ১৮ কোটি ৬৬ লাখ ২০ হাজার টাকা।

আগের অর্থ বছর ২০১৩-১৪-এর তুলনায় ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে তৈরি পোশাকের ওভেন খাতে রফতানি বেড়েছে ৫ শতাংশ। টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ ৬২ কোটি ২৫ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। ওভেন খাতে এ সময়ে মোট রফতানি হয়েছে ১ হাজার ৩০৬ কোটি ৪৬ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

অর্থ বছর বিবেচনায় ২০১৪-১৫ সময়ে ২০১৩-১৪-এর তুলনায় নিট খাতে রপ্তানি বেড়েছে ৩৭ কোটি ৬৯ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার বা ৩ দশমিক ১৩ শতাংশ বা। এ খাতে মোট রফতানির পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৪২ কোটি ৬৭ লাখ ৯০ হাজার মার্কিন ডলার।

২০১৪-১৫ সময়ে রসায়ন খাতে ২০ দশমিক ১১ শতাংশ, প্লাস্টিক পণ্যে ১৭ দশমিক ৩৫ শতাংশ, পাট খাতে ৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ ও প্রকৌশল পণ্যে ২১ দশমিক ৯৩ শতাংশ রফতানি বেড়েছে।

অপর দিকে এ সময় রফতানি কমেছে পেট্রোলিয়াম বায়ো-প্রোডাক্টস ৫২ দশমিক ২৩ শতাংশ, প্রক্রিয়াজাত চামড়া ২১ দশমিক ৩৬ শতাংশ, হিমায়িত খাদ্য ১০ দশমিক ৯৯ শতাংশ, সিরামিক পণ্য ৯ দশমিক ৭৯ শতাংশ, কৃষি পণ্য ৪ দশমিক ৭২ শতাংশ এবং বিশেষায়িত বস্ত্র খাতে ১ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।