রাত ০২:১৭ ; মঙ্গলবার ;  ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯  

ওইসিডি’র রেটিংয়ে মর্যাদা বাড়লো বাংলাদেশের

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক॥

অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (ওইসিডি) বিন্যাসকরণ কমিটির সভায় বাংলাদেশের সার্বিক কান্ট্রি রেটিং এক ধাপ এগিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের (বিবি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার একথা জানানো হয়। স্থিতিশীল মাথাপিছু আয় নিয়ে বাংলাদেশ একটি নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে- গত মঙ্গলবার বিশ্বব্যাংক এই তথ্য জানানোর পর কেন্দ্রীয় ব্যাংক ওইসিডি রেটিংয়ে এগিয়ে যাওয়ার খবর জানায়।

বাংলাদেশ ব্যাংক আরও জানায়, গত সপ্তাহে সুইজারল্যান্ডের জুরিখে অনুষ্ঠিত এক সভায় সুইস এক্সপোর্ট ক্রেডিট এজেন্সির (এসইআরভি) পরিচালক হারবার্ট উইট বিবি গভর্নর ড. আতিউর রহমানকে বাংলাদেশের ৫ থেকে ৬ এ উন্নীত হওয়ার বিষয়টি অবহিত করেন।

উইট ওই সভায় বলেন, গত ১৭ জুন ওইসিডির বিন্যাসকরণ কমিটির সভায় বাংলাদেশের রেটিং আপগ্রেড করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিবৃতিতে বলা হয়, ২৯ জুন এসইআরভি’র সভায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর বলেছেন, ‘বাংলাদেশ যেন একটি না বলা গল্প’। তিনি ওইসিডির শ্রেণিবিন্যাসে বাংলাদেশের অগ্রগতির জন্য সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, এটি বাংলাদেশি উদ্যোক্তা এবং ব্যাংকগুলোর গ্যারান্টি ও ঋণপত্রের খরচ উল্লেখযোগ্য হারে কমাতে ভূমিকা রাখবে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাজনৈতিক অস্থিরতা ও দুর্বল বহিঃচাহিদা সত্ত্বেও বেশি সময় ধরে বাংরাদেশের সহনশীল অর্থনীতির সাথে উচ্চ ও স্থিতিশীল অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের রেটিং উন্নীতকরণে মূল কারণ হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। এই বিন্যাসকরণে আশেপাশের দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে। যেমন পাকিস্তান (৭/৭), শ্রীলংকা (৬/৭), নেপাল (৬/৭), মায়ানমার (৬/৭) এবং মঙ্গোলিয়া (৭/৭) ওপরে রয়েছে। একমাত্র ভারতের (৩/৭) পেছনে বাংলাদেশ।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিবৃতিতে আরও বলা হয়, দীর্ঘ সময় ধরে চলা সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতার কারণে বাংলাদেশ একটি অতিমাত্রায় উন্নয়ন সাহায্যপ্রার্থী দেশ থেকে একটি নতুন অগ্রসরমান বাজারে পরিণত হয়েছে। খবর বাসসের।

/এফএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।