রাত ০৯:৪৩ ; মঙ্গলবার ;  ২৫ জুন, ২০১৯  

রওশন ছাড়াই এরশাদের ইফতার

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ইফতার পার্টিতে এসেছেন রাজনীতিবিদ ও কূটনীতিকরা। তবে আসেননি বিরোধীদলের নেতা রওশন এরশাদ। রাজধানীর গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনে কূটনীতিক, বিশিষ্ট ব্যক্তি ও রাজনীতিবিদের সম্মানে এই ইফতারের আয়োজন করা হয়েছিল।

এতে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড.শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ।

ইফতারের পূর্বে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, ‘আমরা মানুষের কল্যাণের জন্য রাজনীতি করি। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে জনগণের নাভিশ্বাস যেন না উঠে সেদিকে সরকারকে খেয়াল রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিনিয়ত মানুষ মারা যাচ্ছে। সামনে ঈদ । এসময় যাতে মানুষ নিরাপদে পরিবার-পরিজনের কাছে যেতে পারে সে বিষয়ে সরকারকে ব্যবস্থা নিতে হবে।’

আওয়ামী লীগের নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, শ্রম ও কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বেসামরিক বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন প্রমুখ। জাতীয় পার্টির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদের, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, কাজী ফিরোজ রশিদ, বিরোধীদলের চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী, সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিন, আজম খান, উত্তরের সভাপতি এস এম ফয়সল চিশতী, মীর আব্দুস আসুদ,সুনীল শুভরায়, বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) মান্নান, জাপা নেতা মনিরুল ইসলাম মিলন, জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক আশরাফ আলী প্রমুখ। কূটনীতিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া বার্নিকাট, যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার রবার্ট গিবসন, জার্মানের ড. থমাস, সুইডেনের জন ফ্রাইসেন, ইটালির মারিয়ো পালমা, তুরস্কের হুসাইন মাবতুবলো, ভারতের ডেপুটি হাইকমিশনার অসীম মহাজন, সৌদি আরবের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স খালিদ বিন আল ওটাইবি, ইরানের রাষ্ট্রদূত আব্বাস বেইজি, প্যালেস্টাইনের শের মোহাম্মদ আবুইয়্যাদে, নেপালের হ্যারিকুমার শেরেস্তা, নরওয়ের ম্যারিট ল্যুনডিমো, ফিলিফাইনের ভিনসেন্ট ভিভিনিকো টি ভ্যান্ডিলো, ভুটানের প্রেমাসোডেন সহ ২৬টি দেশের কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

/সিএ/ এএইচ / 

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।