দুপুর ০২:০৬ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

‘সরকারি গাছ সরকার দলের নেতারাই কাটবে’

প্রকাশিত:

নীলফামারী প্রতিনিধি

‘আমি শ্রমিকলীগ করি। আমার করাতকলে শত শত সরকারি গাছ পড়ে আছে। সরকারি গাছ সরকারি দলের নেতারা কাটবে এটাই বাস্তব। আপনাদের যা করার করেন।‘ শনিবার নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের শ্রমিক লীগ সভাপতি সহর আলী সরকারি গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় এমনটাই বলেন।   

এলাকাবাসীর অভিযোগ, শনিবার সকালে তিস্তা নদীর বার্নিরঘাট বিজিপি ক্যাম্পসংলগ্ন পাটগ্রাম পাড়ায় একটি ‘লাখ টাকা মূল্যের’ শিমুল গাছ কেটে নিয়ে যান সহর আলী। সরকারি দলের দাপট দেখিয়ে তিস্তার বাঁধসহ বন বিভাগের অসংখ্য মূল্যবান গাছ তিনি কেটে নিয়েছেন বলে তারা জানায়।

এর আগে গত ২৬ মার্চ সহর আলী পানি উন্নয়ন বোর্ডের দুইটি শিমুল গাছ কেটে নিয়ে যান। ঘটনার পরদিন ২৭ মার্চ সহর আলীর করাতকল থেকে শিমুল গাছের গুঁড়ি উদ্ধার করে পাউবোর সিবিএ নেতারা।

অভিযোগ আছে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের তিস্তা ব্যারেজের সহকারী প্রকৌশলী তোবারক হোসেন, পাউবোর শ্রমিক নেতা বুলবুল, রোকনুজ্জামান বাবুলের সঙ্গে আঁতাত করে তিনি দীর্ঘদিন ধরে সরকারি গাছ কাটছেন। স্থানীয় টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের মতির বাজারে তার করাত কলে চোরাই গাছের বিশাল স্তুপ জমে আছে।

এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডালিয়া ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কোনও গাছ টেন্ডারে বিক্রি করা হয়নি। সহর আলী চুরি করে গাছ কাটছেন।বিষয়টি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সহকারী প্রকৌশলীকে নির্দেশ প্রদান দেওয়া হয়েছে।

/এনএস/এসএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।