দুপুর ০৩:০১ ; শুক্রবার ;  ১৮ অক্টোবর, ২০১৯  

রফতানিমুখী শিল্পে সহযোগিতা না পেলে বিপর্যয়: ইএবি

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে রফতানিমুখী শিল্পখাতে সরকারের সহযোগিতা না পেলে এ খাতে বিপর্যয় নেমে আসবে বলে মনে করে এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইএবি)।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর কাওরানবাজারস্থ বিজিএমই ভবনের সভাকক্ষে এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইএবি) আয়োজিত ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন সংগঠনের সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই সহ সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বিকেএমইএ সহ-সভাপতি মো. হাতেম, বিজিএমইএ সহ-সভাপতি রিয়াজ বিন মাহমুদ প্রমুখ।

সম্মেলনে সালাম মূর্শেদী বলেন, “তৈরি পোশাক খাতের মালিকরা সরকারকে ট্যাক্স দিতে চায়। তবে ট্যাক্স দেওয়ার জন্য এ বছর সঠিক সময় না। চলতি বছরের প্রথম তিন মাসের ক্ষতি সামলে উঠতে পারিনি। এরপরও ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে রফতানিমুখী শিল্পে উৎসে কর ০ দশমিক ৩ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে এক শতাংশ করা হয়েছে।” এতে এ শিল্পের রফতানি প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে বলেও মনে করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশের মালিকরা পোশাকের দর বাড়াতে পারছে না। এতে প্রতিদ্বন্দ্বী দেশগুলোর সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারছে না এ শিল্পের উদ্যোক্তারা।

সালাম মুর্শেদী বলেন, “তৈরি পোশাক শিল্পখাতের দক্ষতা উন্নয়নে ১০০ কোটি টাকার জাতীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন তহবিল গঠন করতে হবে।”

এ ছাড়াও নিরাপদ কর্ম পরিবেশ সৃষ্টিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে বিশেষ পুণঃঅর্থায়ন কর্মসূচি (স্কিম) চালুর আহবান জানান তিনি।

সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক মূল্য হারিয়েছে ১ দশমিক ৮৫ শতাংশ। অথচ একই সময় পাকিস্তান ১ দশমিক ৬২ শতাংশ, ইন্দোনেশিয়া ২ দশমিক ৩৪ এবং ভারত ১ দশমিক ২৫ শতাংশ মূল্যবৃদ্ধি করতে সক্ষম হয়েছে।

পাশাপাশি প্রবৃদ্ধিতেও ক্রমাগত পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। চলতি অর্থ বছরে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পের রফতানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩ দশমিক ১৮ শতাংশ।

অথচ প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের পোশাক খাতের রফতানি প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ৭৫ শতাংশ, ভারত ১০ দশমিক ৫৮ শতাংশ এবং ভিয়েতনামের প্রবৃদ্ধি ১৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।