দুপুর ০১:০৯ ; মঙ্গলবার ;  ১৯ নভেম্বর, ২০১৯  

সাংবাদিকদের ওপর হামলার নির্দেশদাতা শনাক্ত

প্রকাশিত:

বিনোদন প্রতিবেদক।।

মঙ্গলবারের ফ্যাশন শো’তে বিনোদন সাংবাদিকদের লাঞ্ছনার নির্দেশকারীকে শনাক্ত করা হয়েছে। সাংবাদিকদের প্রথমে বাধা, অকথ্য ভাষায় গালি দেওয়ার পর ‘করো লাঠিচার্জ’ বলা সেই নির্দেশদাতার নাম রাকিব হাসান। পাশাপাশি এস চৌধুরী মবিন নামের অপর কর্মকর্তা এতে উস্কানি দেন। হামলার শিকার একাধিক সংবাদকর্মী ছবি দেখে রাকিব হাসান ও এস চৌধুরী মবিনকে শনাক্ত করেছেন। পরে ফেসবুক ঘেঁটে তাদের নামটি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ঘটনায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত বিডিনিউজের জয়ন্ত সাহার কাছে মবিন ও রাকিবের ছবি পাঠানো হলে তিনিও বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বলেন, ‘মূলত মবিনের উস্কানিতেই এমন জঘন্য পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ঢুকতে বাধা দেওয়া সময় সাংবাদিক নিয়ে অভদ্র ভাষায় কথা বলেন। যার ফলে উপস্থিত সংবাদকর্মীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন। আর রাকিব সরাসরি নির্দেশ দেন লাঠিচার্জ করতে।’

এদিকে রাকিব ও মবিনের সঙ্গে বিতর্কিত আয়োজক প্রতিষ্ঠান গ্রিন অ্যাপল কমিউনিকেশনসের অফিশিয়াল সম্পৃক্ততা নিশ্চিত হতে এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সানজিদা লুনার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাড়া দেননি। মঙ্গলবারের ঘটনার পর তিনি কোনও সাংবাদিকের ফোন ও মেসেজে উত্তর দিচ্ছেন না।

সেদিনের এ হামলার শিকার হন বিডিনিউজ, প্রথম আলো, বাংলামেইল, বাংলা ট্রিবিউনসহ বেশ কিছু গণমাধ্যমের সংবাদকর্মীরা। হামলার হাত থেকে বাঁচাতে ধস্তাধস্তিতে আহত হন বাংলা ট্রিবিউনের ফটোসাংবাদিক সাজ্জাদ হোসেন। এরমধ্যে গুরুতর জখম হন বিডিনিউজের জয়ন্ত সাহা, তানজিল আহমেদ জনি ও ডেইলি লাইফ নিউজের এম. রেজাউল করিম। সংঘর্ষের সামনে দিয়েই সেসময় আয়োজনের অতিথি বলিউড তারকা পরিণীতি চোপড়া অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।

সাংবাদিকের ওপর আঘাতের ঘটনায় গ্রিন অ্যাপল কমিউনিকেশনকে ধিক্কার জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে লেখালেখি হচ্ছে। আর আগামীতে এই প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের কার্যক্রম বর্জনের আহ্বান জানিয়েছেন বিনোদন সাংবাদিকরা।

 

#সংবাদ সম্মেলনে ক্ষমা চাইতে চায় বিতর্কিত সেই প্রতিষ্ঠান

#পরিণীতির অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের ওপর হামলা

/এম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।