সকাল ০৮:২০ ; শুক্রবার ;  ১৫ নভেম্বর, ২০১৯  

ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে সময় কমবে দুই ঘণ্টা: রেলমন্ত্রী

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মেঘনা নদীর উপর দ্বিতীয় রেলসেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে দুই ঘণ্টা সময় কমে আসবে বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক। তিনি বলেন, দ্বিতীয় ভৈরব রেলসেতু নির্মিত হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে আরও নতুন ট্রেন, ইঞ্জিন ও বগি যুক্ত করা হবে। ভারতের অর্থায়নে দ্বিতীয় এই রেলসেতুটির কাজ প্রায় ৪০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে আশুগঞ্জে নির্মাণাধীন দ্বিতীয় রেলসেতুর কাজ পরিদর্শনের সময় তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, চলতি মাসেই আখাউড়া থেকে লাকসাম রেলপথ ডাবল লাইন করতে দ্রুত দরপত্র আহ্বান করা হবে। এই প্রকল্প বর্তমান সরকারের রেল নিয়ে মেগা পরিকল্পনারই অংশ।

পরিদর্শনের সময় মন্ত্রীর সঙ্গে রেল মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ফিরোজ সালাহউদ্দিন, রেলওয়ের মহাপরিচালক আমজাদ হোসেন, পূর্বাঞ্চলীয় জোনের মহাব্যবস্থাপক মোজাম্মেল হক, দ্বিতীয় ভৈরব ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস রেলসেতুর প্রকল্প পরিচালক আবদুল হাই, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের কিশোরগঞ্জের ভৈরব ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ অংশে মেঘনা নদীর ওপর দ্বিতীয় রেলসেতু নির্মাণ কাজের ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৬৭ কোটি ১৬ লাখ টাকা। ভারত সরকার এই টাকা অর্থায়ন করছে। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে এই সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

/এমডিপি/এফএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।